image_272725.korbanio1
ঈদুল আজহার দ্বিতীয় দিন শনিবার রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে পশু কোরবানি হতে দেখা গেছে।
যারা নানা কারণে ঈদের দিন কোরবানি দিতে পারেননি, তারা তাদের ধর্মীয় বিধান পালন করেছেন। পুরান ঢাকাসহ নগরীর অভিজাত এলাকায় যারা একাধিক পশু কোরবানি দিয়ে থাকেন, তাদের অনেককে গতকালের মতে আজও পশু কোরবানি দিতে দেখা গেছে।
পুরান ঢাকার রায়সাহেব বাজার, বংশাল, অভিজাত এলাকা গুলশানের বারিধারা এবং মালিবাগ ও খিলগাঁও এলাকায় আজ অনেকেই পশু কোরবানী দিয়েছেন।
মালিবাগের স্থায়ী বাসিন্দা শিপন আহমেদ আকন্দ জানান, তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে দু’টি গরু কোরবানি দেয়া হয়। একটি তার মা এবং অপরটি তিনি নিজে দিয়ে থাকেন।
শিপন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, ছোট বেলায় তার বাবা মারা যাওয়ায়, তাকেই পরিবারের সব দায়িত্ব পালন করতে হয়। প্রতিবছর তার মা, তার ও তার বাবার নামে পৃথক কোরবানি দেন। এ কারণে তাকে দু’টি গরু কেনা থেকে শুরু করে কোরবানী দেয়া পর্যন্ত সবকিছুর দেখভাল করতে হয়।
তিনি বলেন, ঈদের দিন একসঙ্গে দু’টি গরু কোরবানি দিয়ে ভাগ বাটোয়ারা করা বেশ কষ্ট সাধ্য বলে দু’দিনে দু’টি গরু কোরবানি দিয়ে থাকেন।
শিপন আকন্দ আরো বলেন, ঈদের দিন মা’র ও পরের দিন তার গরু কোরবানি দেন। এতে বেশ সাচ্ছন্দে কাজ সম্পন্ন করা যায় বলেও তিনি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান।
বারিধারার বাসিন্দা জুয়েল হাজারী ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, তার গ্রামের বাড়ি কক্সবাজারের ডুলাহাজারা। প্রতিবছরই তিনি সেখানে কোরবানি দেন। তবে ব্যবসার কারণে তাকে ঢাকায়ও একটি পশু কোরবানি দিতে হয়। এ পশুর অধিকাংশ মাংস তার অফিস কর্মচারীদের মধ্যে বিতরণ করে দেয়া হয় বলে তিনি জানান।
মাদারটেক সরকারপাড়া মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা নূরে আলম সিদ্দিকী ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, মুসলিম ধর্মীয় বিধান অনুযায়ী ঈদের দিন থেকে তিন দিন কোরবানি দেয়ার নিয়ম রয়েছে। সে হিসেবে মুসলিম ধর্মানুসারী মানুষ রোববারও পশু কোরবানি দিতে পারবেন।
তিনি বলেন, ইসলাম ধর্ম হচ্ছে এমন এক পরিপূর্ণ জীবন বিধান, এর কোন কিছুতেই তেমন কোন বাড়াবাড়ি নেই।
ইমাম বলেন, মানুষের অনেক সমস্যা থাকতে পারে। যেমন- হঠাৎ করে কোন ব্যক্তি বা তার পরিবারের কেউ অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে থাকতে পারেন। সে ক্ষেত্রে একদিনের মধ্যেই যদি কোরবানির বিধান সীমাবদ্ধ থাকতো, তাহলে ওই ব্যক্তি বা পরিবারের পক্ষে কোবরানী দেয়া সম্ভব হতো না।
তিনি বলেন, মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীন তিন দিনের মধ্যে কোরবানি দেয়ার নিয়ম রাখায় মানুষ কোন সমস্যায় পড়লেও তা কাটিয়ে উঠে ধর্মীয় বিধান পালন করতে পারছেন।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/09/image_272725.korbanio1.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/09/image_272725.korbanio1.jpgশুভ সমরাটশেষের পাতা
ঈদুল আজহার দ্বিতীয় দিন শনিবার রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে পশু কোরবানি হতে দেখা গেছে। যারা নানা কারণে ঈদের দিন কোরবানি দিতে পারেননি, তারা তাদের ধর্মীয় বিধান পালন করেছেন। পুরান ঢাকাসহ নগরীর অভিজাত এলাকায় যারা একাধিক পশু কোরবানি দিয়ে থাকেন, তাদের অনেককে গতকালের মতে আজও পশু কোরবানি দিতে দেখা গেছে। পুরান ঢাকার...