আদালত প্রতিবেদক ।
রংপুরে মাজারের খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাত জঙ্গির ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে এসেছে। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে এই ডেথ রেফারেন্স নথি এসে পৌঁছায়। এরপর নথি হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় পৌঁছে দেয়া হয়। নিয়মানুযায়ী এখন এই মামলার পেপারবুক প্রস্তুত হবে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

২৫ মার্চ খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলায় সাত জেএমবি জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ড দেয় রংপুরের একটি আদালত। রায়ে জেএমবির রংপুর অঞ্চলের কমান্ডার মাসুদ রানা ওরফে মামুন ওরফে মন্ত্রী (৩৩), সদস্য ইছাহাক আলী (৩৪), লিটন মিয়া ওরফে রফিক (৩২), সাখাওয়াত হোসেন ওরফে রাহুল (৩০), সরওয়ার হোসেন সাবু ওরফে মিজান (৩০), উত্তরাঞ্চলের কমান্ডার বিজয় ওরফে আলী ওরফে দরজি (৩০) ও চান্দু মিয়াকে (২০) মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত। রায়ে বলা হয়, জঙ্গি তৎপরতা রোধে আরো কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে।

২০১৫ সালের ১০ নভেম্বর রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের চৈতার মোড়ে মাজার শরীফের খাদেম রহমত আলীকে রাতে বাড়ি ফেরার সময় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় তার ছেলে শফিকুল ইসলাম বাদি হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ১৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। রাষ্ট্রপক্ষের ৪৬ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ ও যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ছয়জনকে খালাস দেয় আদালত।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/03/625.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/03/625-300x300.jpgজান্নাতুল ফেরদৌস মেহরিনআইন-আদালত
আদালত প্রতিবেদক । রংপুরে মাজারের খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাত জঙ্গির ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে এসেছে। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে এই ডেথ রেফারেন্স নথি এসে পৌঁছায়। এরপর নথি হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় পৌঁছে দেয়া হয়। নিয়মানুযায়ী এখন এই মামলার পেপারবুক প্রস্তুত হবে।খবর ক্রাইম...