আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওপর সামরিক নির্ভরশীলতা কমিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নিল পাকিস্তান। দেশটির সংবাদপত্র দ্য ডন-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইসলামাবাদের এক সেমিনারে এমনই মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খুররম দস্তগীর খান।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

পাকিস্তান তার প্রয়োজনীয় সামরিক সরঞ্জাম চীন, তুরস্ক, রাশিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার কাছ থেকে সংগ্রহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে ডন। উল্লেখ্য, পাকিস্তান নৌবাহিনীর সামরিক সরঞ্জাম বেশিরভাগই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি হয়। কিন্তু এবার দেশটি চীনের কাছ থেকে তার সামরিক সরঞ্জাম বিশেষ করে গানবোট ও সাবমেরিন কেনার বিষয়ে ভাবনাচিন্তা চালাচ্ছে। জানা গিয়েছে, ইসলামাবাদ এবার হেলিকপ্টার গানশিপ কিনবে চীন ও তুরস্কের কাছ থেকে।

এ ছাড়া, রণতরী কেনা হবে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছ থেকে। পাশাপাশি চীনের কাছ থেকে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র কেনার বিষয়েও বেইজিং-এর সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে ইসলামাবাদ। সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, পাকিস্তান বেশ কয়েকমাস আগে থেকেই উচ্চতর প্রশিক্ষণের জন্য সেনা ক্যাডেটদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছে। পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানান, ইরান, রাশিয়া ও চীন দেশগুলি সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ পাকিস্তানের কাছে। তাই মার্কিন সাহায্য বন্ধ করে দেওয়াকে গুরুত্ব দিচ্ছেনা পাকিস্তান।

পাকিস্তান বিমানবাহিনী বর্তমানে চীন ও পাকিস্তানের যৌথ উদ্যোগে নির্মিত এফ-১৭ জঙ্গিবিমান ব্যবহার করছে। এছাড়া, এই বিমানের চতুর্থ ও পঞ্চম ভার্সনের সামরিক বিমান তৈরির জন্য রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে ইসলামাবাদ।

সম্প্রতি পাকিস্তান সরকারকে কোনো আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে না বলে ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র। গত বৃহস্পতিবার সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ না নেওয়ায় পাকিস্তানের সেনাবাহিনীকে আর কোনো আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দেয় মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সদর দপ্ততর পেন্টাগন। তারা আরও জানায়, এর আগে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান কেনার জন্য পাকিস্তানকে যে বিশাল পরিমাণ অর্থ সাহায্য দেওয়ার কথা ছিল, তাও আটকে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ বছরে যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানকে ৩ হাজার ৩০০ কোটি ডলার দিয়েছে।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/01/925.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/01/925-300x300.jpgতালুকদার বাবুলআন্তর্জাতিক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক । মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওপর সামরিক নির্ভরশীলতা কমিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নিল পাকিস্তান। দেশটির সংবাদপত্র দ্য ডন-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইসলামাবাদের এক সেমিনারে এমনই মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খুররম দস্তগীর খান।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। পাকিস্তান তার প্রয়োজনীয় সামরিক সরঞ্জাম চীন, তুরস্ক, রাশিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার কাছ থেকে সংগ্রহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে...