1439462015
মোবাইল ফোনে সাধারণ মানুষজনের সঙ্গে প্রতারণা করে বিকাশের মাধ্যমে মোটার অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়া চক্রের মূল হোতাসহ দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ডোমার উপজেলার দক্ষিণ আমবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা এ চক্রের মূল হোতা সাইফুল ইসলাম (২১) এবং ডিমলা উপজেলার টুনির হাট এলাকার হিমেল দীপ্ত(২৫)।

বুধবার রাত সাড়ে ১০টায় নীলফামারী ও দিনাজপুর পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে দিনাজপুর শহরের নিমতলাস্থ একটি আবাসিক হোটেল থেকে তাদের গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছে একাধিক মোবাইল ফোন, অসংখ্য মোবাইল সিম ও নগদ ৮৪ হাজার টাকা পাওয়া যায়।

পুলিশ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানায়, এসব প্রতারক বিভিন্ন লোকের মোবাইলে ফোন করে তাদের ছেলে-মেয়ে-ভাই, স্বামী, স্ত্রী প্রমুখ সড়ক দুর্ঘটনা আহত হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এমন মর্মাহত কথা বলে একটি বিকাশ নম্বর ধরিয়ে দিয়ে তাড়াতাড়ি টাকা পাঠাতে বলেন। এছাড়াও মোবাইল ফোনে জিনের বাদশা সেজেও মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতেন তারা।

নীলফামারী সহকারী পুলিশ সুপার সদর সার্কেল ফিরোজ কবির ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মোবাইল ফোনে মানুষকে প্রতারিত করে বিকাশের মাধ্যমে এরা মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে আসছিলেন।

শুভ সমরাটপ্রথম পাতা
মোবাইল ফোনে সাধারণ মানুষজনের সঙ্গে প্রতারণা করে বিকাশের মাধ্যমে মোটার অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়া চক্রের মূল হোতাসহ দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ডোমার উপজেলার দক্ষিণ আমবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা এ চক্রের মূল হোতা সাইফুল ইসলাম (২১) এবং ডিমলা উপজেলার টুনির হাট এলাকার হিমেল দীপ্ত(২৫)। বুধবার রাত সাড়ে...