1442897774
কোরবানিকে সামনে রেখে মেহেরপুর জেলার গরুর হাটগুলো জমে উঠেছে। কোরবানির আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। তাই শেষ মুহূর্তে ক্রেতারা ভিড় করছে হাটগুলোতে। এবার ভারতীয় গরুর আমদানি না থাকায় দেশীয় গরু বিক্রি হচ্ছে হাটগুলোতে। এলাকায় অনেক গরু থাকলেও বেশী দামের আশায় অধিকাংশ গরু চলে যাচ্ছে দেশের বড় বড় হাটগুলোতে। ফলে এবার স্থানীয় হাটে গরুর আমদানি কম। যার কারণে ক্রেতাদের কাছে গরু বিক্রেতারা ইচ্ছামত দাম বলছে বলে জানান ক্রেতারা।

মেহেরপুর পৌর গো-হাট ও গাংনীর বামন্দি গো-হাটসহ জেলার ছোট ছোট হাটগুলো ঘুরে দেখা যাচ্ছে, তিন মণ মাংস হবে এমন গুরু ৩০-৩২ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তারপরেও সাধ ও সাধ্যের মধ্যে গরু কিনছে ক্রেতারা। সব মিলিয়ে এবার হাটে বেচ-কেনা ভাল হচ্ছে বলে জানান হাট মালিকরা।

ওয়াজ কুরুনীস্বদেশের খবর
কোরবানিকে সামনে রেখে মেহেরপুর জেলার গরুর হাটগুলো জমে উঠেছে। কোরবানির আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। তাই শেষ মুহূর্তে ক্রেতারা ভিড় করছে হাটগুলোতে। এবার ভারতীয় গরুর আমদানি না থাকায় দেশীয় গরু বিক্রি হচ্ছে হাটগুলোতে। এলাকায় অনেক গরু থাকলেও বেশী দামের আশায় অধিকাংশ গরু চলে যাচ্ছে দেশের বড় বড় হাটগুলোতে। ফলে এবার...