আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।
মিয়ানমারে বৌদ্ধধর্মাবলম্বী রাখাইনদের ওপর পুলিশের গুলিবর্ষণে সাতজন নিহত ও আরো অনেকে আহত হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে তারা একটি সরকারি দপ্তর দখলে নেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে গুলি বর্ষণ করলে হতাহতের ঘটনা ঘটে। পুলিশ একথা জানায়।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

খবরে বলা হয়, বৌদ্ধধর্মাবলম্বী কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী একটি অনুষ্ঠান পালনের জন্য প্রাচীন মন্দির চত্বর মরাউকে সমবেত হয়েছিল। এ অঞ্চলের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর সামরিক বাহিনী ব্যাপক দমনপীড়ন চালালেও এটি এখন পর্যন্ত অক্ষত রয়েছে। তবে তাদের সমাবেশটি কেন সহিংস রূপ নিলে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশের বিভিন্ন শিবিরে আশ্রয় নেয়া ছয় লাখ ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থীকে ফেরত নিতে শুরু করতে মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে প্রত্যাবাসন চুক্তি স্বাক্ষরের দিন এ সংঘর্ষ হলো।

পুলিশ এ সহিংসতার জন্য সেখানে সমবেত হওয়া জনতাকে দায়ী করেছে। কারণ, তারা জেলা প্রশাসনের একটি দপ্তর দখল করে সেখানে রাখাইন রাজ্যের পতাকা উত্তোলনের চেষ্টা চালাতে গেলে এ সংঘর্ষ শুরু হয়।

মিয়ানমার পুলিশের মুখপাত্র কর্নেল মিয়ো সোয়ে বলেন, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা সমবেত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে প্রথমে রাবার বুলেট ছুঁড়লেও তারা সরে না যাওয়ায় পুলিশ গুলি বর্ষণ করে। এতে সাতজন নিহত ও ১৩ জন আহত হয়।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। সূত্র : এএফপি

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/01/940.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/01/940-300x214.jpgশিশির সমরাটআন্তর্জাতিক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক । মিয়ানমারে বৌদ্ধধর্মাবলম্বী রাখাইনদের ওপর পুলিশের গুলিবর্ষণে সাতজন নিহত ও আরো অনেকে আহত হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে তারা একটি সরকারি দপ্তর দখলে নেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে গুলি বর্ষণ করলে হতাহতের ঘটনা ঘটে। পুলিশ একথা জানায়।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। খবরে বলা হয়,...