1439870106
মাগুরায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে গর্ভস্থ শিশুসহ মা গুলিবিদ্ধ এবং একজন নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার ৩ নং আসামি মেহেদী হাসান আজিবর ওরফে আজিবর শেখ পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। সোমবার গভীর রাতে শহরের সদোয়ার পাড় এলাকায় এই ‘বন্দুকযুদ্ধে’র ঘটনা ঘটে।

নিহত আজিবর শহরের দোয়ারপাড় এলাকার আব্দুল মালেকের ছেলে।

মাগুরা পুলিশ সুপার এ কে এম এহসান উল্লাহ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, সোমবার রাত ১২টা ১০ মিনিটের দিকে পুলিশের একাটি টহল দল সদোয়ার পাড় এলাকায় গেলে জঁটলা দেখতে পায়। এরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে টহল দলটিকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। পরে ঘটনাস্থলে গুলিবিন্ধ অবস্থায় মেহেদী হাসান আজিবরের লাশ পাওয়া যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি এলজি ও ২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

ঐ ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পুলিশের ছয় সদস্য আহত হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জুলাই শহরের দোয়ার পাড় এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় গুলিতে আব্দুল মমিন ভূইয়া নামে এক ব্যক্তি নিহত হন। গর্ভস্থ শিশুসহ গুলিবিদ্ধ হন নাজমা বেগম নামে এক গৃহবধূ। বর্তমানে নবজাতক সুরাইয়া ও মা নাজমা বেগম ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

এ ঘটনায় নিহত আব্দুল মমিনের ছেলে রুবেল মিয়া বাদী হয়ে ২৬ জুলাই মাগুরা সদর থানায় ১৬ জনের নামে মামলা দায়ের করেন। আসামিদের মধ্যে এ পর্যন্ত আটজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে ডিবি পুলিশ।

হাসন রাজাশেষের পাতা
মাগুরায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে গর্ভস্থ শিশুসহ মা গুলিবিদ্ধ এবং একজন নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার ৩ নং আসামি মেহেদী হাসান আজিবর ওরফে আজিবর শেখ পুলিশের সাথে 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত হয়েছেন। সোমবার গভীর রাতে শহরের সদোয়ার পাড় এলাকায় এই 'বন্দুকযুদ্ধে'র ঘটনা ঘটে। নিহত আজিবর শহরের দোয়ারপাড় এলাকার আব্দুল মালেকের ছেলে। ...