Untitled-120-290x158
যারা পড়াশোনায় মনোযোগী ও নিয়মিত ছাত্র ভোটের মাধ্যমে তাদের নেতা নির্বাচনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘ভোটোর মাধ্যমে ছাত্রলীগের নেতা নির্বাচন করতে হবে। কেউ বাধা দিবে না। তবে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মনে রাখতে হবে যারা মেধাবী, পড়াশোনায় মনোযোগী এবং নিয়মিত ছাত্র তাদের নির্বাচিত করতে হবে।’

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শনিবার দুপুরে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগের ২৮তম সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ নির্দেশ দেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘এ উপমহাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগকে বলব, ছাত্রলীগ যেন আদর্শ নিয়ে চলে। আদর্শহীন সংগঠন ব্যক্তি ও জাতির স্বার্থ রক্ষা করতে পারে না।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজকের ছাত্রলীগের নেতারাই আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আসবে। আমি নিজেও ছাত্রলীগের কর্মী ছিলাম। আমাকে কোনো দিন কেন্দ্রীয় কমিটিতে পদ দেওয়া হয় নাই।’

তিনি আক্ষেপ করে বলেন, ‘আমি দেশের দুঃসময়ে রাজপথে ছিলাম, স্কুলের দেয়াল টপকিয়ে মিছিলে যেতাম, ৬ দফা ঘোষণার সময় ১৯৬৬ সালে বদরুন্নেছা কলেজের ভিপি ছিলাম কিন্তু আমাকে কেন্দ্রীয় কমিটিতে রাখা হয় নাই। তাই সবাইকে ত্যাগের মহিমা নিয়ে ছাত্রলীগ করতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের ত্যাগের মহিমা আছে বলেই দেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ছাত্রলীগকেও ত্যাগের মহিমা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।’

ছাত্রলীগের সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগের সভাপতিত্বে সম্মেলনে উপস্থিত রয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাপরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য ওবায়দুল কাদের, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম।

এর আগে সকাল ১১টায় প্রধানমন্ত্রী জাতীয় পতাকা ও পায়রা উড়িয়ে ছাত্রলীগের সম্মেলন উদ্বোধন করেন। রবিবার ছাত্রলীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

তুনতুন হাসানজাতীয়
যারা পড়াশোনায় মনোযোগী ও নিয়মিত ছাত্র ভোটের মাধ্যমে তাদের নেতা নির্বাচনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘ভোটোর মাধ্যমে ছাত্রলীগের নেতা নির্বাচন করতে হবে। কেউ বাধা দিবে না। তবে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মনে রাখতে হবে যারা মেধাবী, পড়াশোনায় মনোযোগী এবং নিয়মিত ছাত্র তাদের নির্বাচিত করতে হবে।’ রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শনিবার...