thander-290x188
জেলার বোঁচাগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে স্কুলছাত্র ও কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় বজ্রপাতে ১০ শিক্ষার্থী আহত হয়।
উপজেলার দেউর গ্রামে রবিবার দুপুর দেড়টায় এ ঘটনা ঘটে।
মৃতরা হলেন- দেউর উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র দেউর গ্রামের বাবুল হোসেনের ছেলে মো. বাপ্পি (১২) ও জালগাঁও গ্রামের কৃষক নেগর চন্দ্র রায়ের ছেলে শ্যামল চন্দ্র রায় (৩০)।
দেউর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আমিনুল হক ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, দুপুরে টিফিনের সময় শিক্ষার্থীরা মাঠে ও বারান্দায় খেলা করছিল। এ সময় হঠাৎ বজ্রপাতে বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী শিরিন আক্তার, মকছেদ আলম, ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র সুরেশ চন্দ্র, সাবির হোসেন, সাইদুর রহমান, দেউর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র রিফাত রহমান, মতিউর রহমানসহ ১০ জন আহত হয় এবং বাপ্পি মারা যায়। আহতদের উদ্ধার করে বোঁচাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
অপরদিকে একই সময় একই এলাকার জালগাঁও গ্রামের কৃষক শ্যামল চন্দ্র রায় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ সময় তিনি বাড়ির পাশের মাঠে কাজ করছিলেন।
বোঁচাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুল হক প্রধান ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, আহত ও মৃতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তুনতুন হাসানপ্রথম পাতা
জেলার বোঁচাগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে স্কুলছাত্র ও কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় বজ্রপাতে ১০ শিক্ষার্থী আহত হয়। উপজেলার দেউর গ্রামে রবিবার দুপুর দেড়টায় এ ঘটনা ঘটে। মৃতরা হলেন- দেউর উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র দেউর গ্রামের বাবুল হোসেনের ছেলে মো. বাপ্পি (১২) ও জালগাঁও গ্রামের কৃষক নেগর চন্দ্র রায়ের ছেলে শ্যামল চন্দ্র...