আদালত প্রতিবেদক ।
প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও প্রতিটি বিচারপ্রার্থী মানুষের ন্যায়বিচার নিশ্চিতে যাকিছু করা সম্ভব তা সবই করা হবে।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।
তিনি বলেন, সততাই হচ্ছে একজন বিচারকের মূল শক্তি আর জবাবদিহিতার জায়গা হচ্ছে তার বিবেকে। তাই শপথ অনুযায়ী বিচারকার্য পরিচালনা করলে বিচারকদের জন্য পৃথক আচরণ বিধির প্রয়োজন নিই।

আজ রবিবার অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির দেয়া সংবর্ধনার জবাবে দেশের ২২তম প্রধান বিচারপতি এসব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতির এজলাসে সকাল ১০টা ৪০মিনিটে তাকে এ সংবর্ধনা দেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও বার সভাপতি জয়নুল আবেদীন।

প্রধান বিচারপতি আরো বলেন, রাষ্ট্রের তিনটি অঙ্গ। এই ‍তিন অঙ্গের পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে একটা দেশের উন্নয়ন সাধিত হয়। আর সমন্বয়ের অভাবে ব্যাহত হয় উন্নয়ন। এই তিনটি অঙ্গের মধ্যে সমন্বয় রক্ষার জন্য আমি সবসময় চেষ্টা করব। একইসঙ্গে প্রধান বিচারপতি সুপ্রিমকোর্টের সকল বিচারপতিদের সংবিধান, আইন ও শফথ অনুযায়ী বিচার কাজ পরিচালনার জন্য আহ্বান জানান।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/02/95.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/02/95-300x300.jpgজান্নাতুল ফেরদৌস মেহরিনআইন-আদালত
আদালত প্রতিবেদক । প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও প্রতিটি বিচারপ্রার্থী মানুষের ন্যায়বিচার নিশ্চিতে যাকিছু করা সম্ভব তা সবই করা হবে। খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। তিনি বলেন, সততাই হচ্ছে একজন বিচারকের মূল শক্তি আর জবাবদিহিতার জায়গা হচ্ছে তার বিবেকে। তাই শপথ অনুযায়ী...