নিজস্ব প্রতিবেদক ।
আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং দলের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপিকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে তাদের কাছে বেগম খালেদা জিয়া মুখ্য নাকি দল মুখ্য।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

আজ সোমবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সেমিনার হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ‘গ্রেনেড হামলায় নিহত সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ্ এ এম এস কিবরিয়ার ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বর্তমান প্রেক্ষাপট ও চলমান রাজনীতি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপির কাছে খালেদা জিয়া মুখ্য নাকি দল মুখ্য এটি বিএনপিকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে। আশা করবো, বিএনপি সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচন যেমন কারো জন্য বসে থাকেনি অাগামী নির্বাচনও কারো জন্য বসে থাকবে না। সুতরাং আপনাদেরকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে বেগম খালেদা জিয়ার জন্য বিএনপি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে কিনা এবং অাত্মহননের যে প্রক্রিয়া আপনারা ২০১৪ সালে শুরু করেছিলেন সেটি ২০১৮ সালে সম্পন্ন করবেন কিনা। সেই সিদ্ধান্ত আপনাদেরকেই নিতে হবে।

বিএনপি হত্যার রাজনীতি থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি উল্লেখ করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন- হত্যা, খুন, ষড়যন্ত্র এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির মধ্যেই বিএনপির রাজনীতির প্রতিপাদ্য বিষয় নিহিত। তাদের জন্মই হয়েছে হত্যা এবং খুনের মধ্যদিয়ে। রাজনীতিতে যারা ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট গ্রহণ করার জন্য দল বদল করে তাদের সমন্বয়ে গঠিত বিএনপি।

বিএনপি নেতাদের তর্জন গর্জন বর্ষাকালের ব্যাঙ ডাকার মতো উল্লেখ করে তিনি বলেন, আজকে বেগম খালেদা জিয়া আদালতে শাস্তির মুখোমুখি দাঁড়িয়ে। বিএনপি নেতারা পালিয়ে বেড়াচ্ছে, কর্মীরা বিএনপি নেতাদের সঙ্গে নেই। সুতরাং শুস্ক মৌসুমে ব্যাঙ ডাকে না, বর্ষাকালে যখন চারদিক পানিতে তলিয়ে যায় এবং ব্যাঙের সমস্ত আবাসস্থল ডুবে যায়, ব্যাঙ খুব অসহায়, তখন ব্যাঙ ডাকে। বিএনপি নেতাদের সাম্প্রতিক বক্তব্য, বিবৃতি, তর্জন, গর্জন এগুলো বর্ষাকালের ব্যাঙ ডাকার মতো।

‘বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়া বিএনপি নির্বাচনে যাবে না’ সম্প্রতি বিএনপি নেতাদের নির্বাচন কমিশনে দেয়া বক্তব্যের হাছান মাহমুদ বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে রক্ষা করতে যেয়ে বিএনপি যেন নিশ্চিহ্ন হয়ে না যায়।

‘বেগম খালেদা জিয়ার শাস্তি হলে দেশে আগুন জ্বলবে’ বিএনপি নেতাদের সাম্প্রতিক বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে দলের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ বলেন, এই ধরনের কথাবার্তা স্পষ্টত আদালতকে হুমকি দেয়া। আশা করবো আদালতকে হুমকি দিয়ে তারা যে বক্তব্য দিচ্ছেন আদালত সেটির কি শাস্তি দিবেন আদালতই ভালো জানেন। বেগম জিয়ার অাদৌ শাস্তি হবে কিনা সেটিও আদালত বলতে পারেন। অথচ বিএনপি নেতারা বিভিন্ন সভা সেমিনারে, বিভিন্ন টকশোতে এই ধরনের বক্তব্যের মাধ্যমে তারা আদালতকে হুমকি দিচ্ছেন। আশা করবো অাদালত তাদের এই বক্তব্য গুলো ধর্তব্যের মধ্যে নিয়ে আদালত অবমাননার জন্য তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা লায়ন চিত্ত রঞ্জন দাশের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সাংসদ সারাহ বেগম কবরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা চিত্রনায়ক ফারুক, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন টয়েল, আওয়ামী হকার্স লীগের সভাপতি জাকারিয়া হানিফ প্রমুখ।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/01/366.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/01/366-300x300.jpgজান্নাতুল ফেরদৌস মেহরিনপ্রথম পাতা
নিজস্ব প্রতিবেদক । আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং দলের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপিকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে তাদের কাছে বেগম খালেদা জিয়া মুখ্য নাকি দল মুখ্য।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। আজ সোমবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সেমিনার হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত 'গ্রেনেড হামলায় নিহত...