DHASON
রাজধানীর কুড়িলের একটি বাসায় আটকে রেখে এক কলেজছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সকালে ওই ছাত্রী পালিয়ে স্বজনদের মাধ্যমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন।

ঢাকার একটি সরকারী কলেজের সম্মান দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রী বর্তমানে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি রয়েছেন।

ধর্ষণের শিকার ছাত্রী ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানিয়েছেন, পূর্ব পরিচিত আরিফুল ইসলাম সবুজ নামে এক যুবক দুই বন্ধুর সহায়তায় তাকে ধর্ষণ করে। সেই দৃশ্যও ধারণ করে গোপন ক্যামেরায়। সে নিজেকে পুলিশ সোর্স পরিচয় দিয়ে কোন থানায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ নেবে না বলেও শাঁসিয়ে দেয়।

ওই ছাত্রীর ভাষ্য, তিনি মহাখালীতে একটি ছাত্রী হোস্টেলে থাকেন। মঙ্গলবার দুপুরে পূর্ব পরিচিত সবুজের দুই বন্ধু কালাম ও রাশিদুল তাকে মহাখালী থেকে কৌশলে কুড়িল বিশ্বরোডে পানির পাম্প সংলগ্ন সবুজের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে তাকে আটকে রেখে তার উপর পাশবিকতা চালায়। বুধবার সকালে তিনি সেখান থেকে কৌশলে বের হয়ে আসেন।

নির্যাতনের শিকার ছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা তার এক স্বজন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, মেয়েটি বুধবার সকালে সবুজের বাসা থেকে কৌশলে বেরিয়ে আসে। ওই সময় সে হুমকি দিয়ে বলে, চলে গেলে লাভ হবে না। সারারাতের ঘটনা গোপন ক্যামেরায় ধারণ করা হয়েছে। কাউকে বললে তা ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়া হবে। তা ছাড়া নিজে পুলিশের সোর্স হওয়ায় কোনো থানাও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ নেবে না বলে হুমকি দেয় সবুজ। এজন্য থানায় না গিয়ে আগে মেয়েটির চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে এসেছেন।

ভাটারা থানার ওসি নুরুল মুত্তাকিন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, খবর পেয়ে হাসপাতালে মেয়েটির সঙ্গে কথা বলেছে পুলিশ। তার কাছ থেকে বিস্তারিত তথ্য নেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত সবুজ ও তার দুই সহযোগীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তবে সন্ধ্যা পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি।

অভিযুক্ত সবুজ পুলিশের সোর্স কিনা জানতে চাইলে ওসি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, তার পরিচয়ের ব্যাপারে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। গ্রেফতার হলেও তার পরিচয় বেরিয়ে যাবে। পুলিশ সেই চেষ্টা করছে।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/09/DHASON4.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/09/DHASON4.jpgতাহসিনা সুলতানাপ্রথম পাতা
রাজধানীর কুড়িলের একটি বাসায় আটকে রেখে এক কলেজছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সকালে ওই ছাত্রী পালিয়ে স্বজনদের মাধ্যমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। ঢাকার একটি সরকারী কলেজের সম্মান দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রী বর্তমানে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি রয়েছেন। ধর্ষণের শিকার ছাত্রী ক্রাইম...