93990_s1
নির্বাচক রডনি মার্শের ফোন পেয়ে ভয় জেগেছিল অ্যাডাম ভোজেসের। গতকাল দৈনিক পার্থ নাও-কে ভোজেস বলেন, ‘আমি ভেবেছিলাম দল থেকে বাদ পড়ার খবর বুঝি দেয়া হচ্ছে আমাকে।’ মাত্র তিন মাস আগেও টেস্ট ক্যাপের অপেক্ষায় থাকতে দেখা যাচ্ছিল ৩৫ বছরের অ্যাডাম ভোজেসকে। তবে সুযোগ নিয়ে দ্রুতই অজি নির্বাচকদের আস্থা কুড়ালেন টপঅর্ডার এ ব্যাটসম্যান। অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফরে সহঅধিনায়কের মর্যাদাটা অ্যাডাম ভোজেসের। আর সফর শুরুর আগে বাংলাদেশ দল নিয়ে তার ভাবনাটাও পরিষ্কার। গতকাল অ্যাডাম ভোজেস বলেন, ‘আমার মনে হয় না বাংলাদেশ দলকে কেউই হালকাভাবে (আন্ডারএস্টিমেট) নেয়। সাম্প্রতিক ক্রিকেটে তাদের সাফল্যটা সবারই চোখে পড়েছে। আর তাদের ক্রম উন্নতিটাও চোখে পড়ছে আমাদের। বাংলাদেশের মাটিতে তাদের হারানো যে কোন দলের জন্যই কঠিন। তাদের মোটেই অবমূল্যায়ন (আন্ডারএস্টিমেটিং) করছি না আমরা। দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলের বিপক্ষেও তারা চমৎকার ক্রিকেট খেলেছে। আমরা জানি, এটা আমাদের জন্য অনেক কঠিন এক সিরিজ হবে।’ প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ১৭০ ম্যাচে অ্যাডাম ভোজেসের সংগ্রহ ১১৩০০ রান। তবে টেস্ট ক্যাপ পেতে ভোজেসকে অপেক্ষায় থাকতে হয় নিজের ৩৫তম জন্মদিন পর্যন্ত। গত জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ক্যাপ পান অ্যাডাম ভোজেস। কেন ইস্টউডের পর অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বেশি বয়সে টেস্ট ক্যাপ পাওয়া খেলোয়াড় তিনি। ১৯৭১ সালে অস্ট্রেলিয়া দলে কেন ইস্টউডের টেস্ট অভিষেক হয় ৩৬ বছর বয়সে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ব্যাট হাতে নৈপুণ্যেও বিরল রেকর্ডে নাম ওঠে অ্যাডাম ভোজেসের। কিংস্টন টেস্টে অভিষেকে সেঞ্চুরি হাঁকান ভোজেস। অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ইতিহাসে অভিষেকে সেঞ্চুরির কৃতিত্ব দেখানো সবচেয়ে বয়সী খেলোয়াড়ও ভোজেস। গত তিন মাসে অস্ট্রেলিয়ার শেষ দুই টেস্ট সিরিজে ৭ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন অ্যাডাম ভোজেস। তবে সর্বশেষ অ্যাশেজের শুরুতে ব্যাট হাতে ভোজেসের নৈপুণ্যে তার বাংলাদেশ সফর অনিশ্চিতই দেখাচ্ছিল। অ্যাশেজের প্রথম তিন টেস্টে ভোজেসের সংগহ ছিল ৩১, ১, ২৫, ১৬ ও ০। তবে সিরিজের শেষ দুই টেস্টে অর্ধশতক হাঁকিয়ে অজি দলে নিজের স্থান ধরে রাখেন অ্যাডাম ভোজেস। ডেভিড ওয়ার্নারের ইনজুরিতে ভোজেস পেয়ে যান বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলিয়া দলের সহঅধিনায়কের মর্যাদাও। দল ঘোষণাকালে অজি প্রধান নির্বাচক রডনি মার্শ বলেন, ‘প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অধিনায়কত্বের বেশ অভিজ্ঞতা রয়েছে তার (ভোজেস)। সে ঠাণ্ডা মাথার মানুষও। বাংলাদেশ সফরে কোন কারণে স্টিভেন (স্মিথ) খেলতে না পারলে অস্ট্রেলিয়া দলের অধিনায়ক হিসেবে আমি ভোজেস ছাড়া অন্য কাউকে দেখি না।’ গত তিন মাসে তার ক্যারিয়ার চিত্র নিয়ে অ্যাডাম ভোজেস নিজেও উচ্ছ্বসিত। ভোজেস বলেন, ছয় মাস পেছনে দেখেন, একটাও টেস্ট খেলিনি আমি। কিন্তু এরই মধ্যে আমি খেলে ফেলেছি ৭টি টেস্ট। আর বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলিয়া দলের সহঅধিনায়কের মর্যাদা পাচ্ছি আমি। এটা আমার কাছে অনেক বড় সম্মানের। নির্বাচক রডনি মার্শের ফোন পেয়ে ভয় জেগেছিল আমার। আমি ভাবলাম দল থেকে বাদ পড়ার খবর বুঝি দেয়া হচ্ছে আমাকে। এশিয়া সফরে অজিদের সাম্প্রতিক স্মৃতিটা হতাশারই। সর্বশেষ সফরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে টেস্টে পাকিস্তানের কাছে ২-০তে সিরিজ হারে অস্ট্রেলিয়া। এশিয়ার মাটিতে শেষ ১৫ টেস্টে অস্ট্রেলিয়া জয় দেখেছে মাত্রই একবার। এ সময় তারা হার দেখেছে ৬ টেস্টে। অজি মিডিয়া মনে করে অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক, রায়ান হ্যারিস, ক্রিস রজার্স, শেন ওয়াটসন, ব্র্যাড হ্যাডিন, ডেভিড ওয়ার্নারের অনুপস্থিতে স্মরণকালের অনভিজ্ঞ দল নিয়ে বাংলাদেশের মোকাবিলায় নামছে অস্ট্রেলিয়া। আর শেষ পাঁচ মাসে বাংলাদেশ দল সিরিজ জয় দেখেছে পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল ঢাকায় পৌঁছার কথা আগামী ২৭শে সেপ্টেম্বর। চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টেস্ট মাঠে গড়াবে আগামী ৯ই অক্টোবর।

নৃপেন পোদ্দারখেলাধুলা
নির্বাচক রডনি মার্শের ফোন পেয়ে ভয় জেগেছিল অ্যাডাম ভোজেসের। গতকাল দৈনিক পার্থ নাও-কে ভোজেস বলেন, ‘আমি ভেবেছিলাম দল থেকে বাদ পড়ার খবর বুঝি দেয়া হচ্ছে আমাকে।’ মাত্র তিন মাস আগেও টেস্ট ক্যাপের অপেক্ষায় থাকতে দেখা যাচ্ছিল ৩৫ বছরের অ্যাডাম ভোজেসকে। তবে সুযোগ নিয়ে দ্রুতই অজি নির্বাচকদের আস্থা কুড়ালেন...