84169_f8
একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের ফোরকান মল্লিককে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। তার বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের দাখিলকৃত পাঁচটি অভিযোগের মধ্যে ৩, ৪ ও ৫ নম্বর অভিযোগে গণহত্যা ও ধর্ষণের তিনটি অভিযোগ সন্দেহাতীতভবে প্রমাণিত হওয়ায় দুটি অভিযোগে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড ও একটি অভিযোগে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়া হয়। ১ ও ২ নম্বর অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত না হওয়ায় এ দুটি অভিযোগ থেকে তাকে খালাশ দেয়া হয়েছে। গতকাল এই রায় ঘোষণা করেন বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল-২। বিচারিক প্যানেলের অন্য দুই সদস্য ছিলেন বিচারপতি মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি শাহিনুর ইসলাম। রায় ঘোষণার সময় সাজাপ্রাপ্ত ফোরকান মল্লিক ট্রাইব্যুনালের কাটগড়ায় হাজির ছিলেন। মোট ২৯৭ প্যারা সংবলিত ৯৯ পৃষ্ঠার রায়ের সংক্ষিপ্ত অংশ পাঠ করেন ট্রাইব্যুনাল। রায়ের পর সন্তোষ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা। অন্যদিকে আসামির আইনজীবী ও স্বজনরা বলছেন, তারা এ রায়ের বিরুদ্ধে সংক্ষুব্ধ হয়েছেন। তাই তারা আপিল করবেন। গত ১৪ই জুন মামলার বিচারিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর মামলার রায় ঘোষণা অপেক্ষমাণ রেখেছিলেন ট্রাইব্যুনাল-২। এর আগে গত ২রা থেকে ১৪ই জুন পর্যন্ত তিন কার্যদিবসে আসামিপক্ষে যুক্তিতর্ক (আর্গুমেন্ট) উপস্থাপন করেন তার আইনজীবী আবদুস সালাম খান। অন্যদিকে গত ২৮শে মে থেকে ১লা জুন পর্যন্ত তিন কার্যদিবসে ফোরকানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন প্রসিকিউটর মোখলেসুর রহমান বাদল। গত বছরের ১৮ই ডিসেম্বর ফোরকান মল্লিকের বিরুদ্ধে একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে হত্যা, গণহত্যা, নির্যাতনসহ পাঁচটি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযোগ গঠন করা হয়েছিল। চলতি বছরের ১৯শে জানুয়ারি থেকে ১৯শে এপ্রিল পর্যন্ত ফোরকান মল্লিকের বিরুদ্ধে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সত্য রঞ্জন রায়সহ রাষ্ট্রপক্ষের ১৪ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন। অন্যদিকে গত ২৬শে এপ্রিল থেকে ১৭ই মে পর্যন্ত ফোরকান মল্লিকের পক্ষে সাফাই সাক্ষ্য দিয়েছেন চারজন সাক্ষী। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ২০০৯ সালের ২১শে জুলাই ফোরকান মল্লিকের বিরুদ্ধে মির্জাগঞ্জ থানায় আবদুল হামিদ নামে এক ব্যক্তি মামলা করেন। গত বছরের ২৫শে জুন পটুয়াখালী গোয়েন্দা শাখার একটি দল বরিশালের রূপাতলী বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

হীরা পান্নাআইন-আদালত
একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের ফোরকান মল্লিককে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। তার বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের দাখিলকৃত পাঁচটি অভিযোগের মধ্যে ৩, ৪ ও ৫ নম্বর অভিযোগে গণহত্যা ও ধর্ষণের তিনটি অভিযোগ সন্দেহাতীতভবে প্রমাণিত হওয়ায় দুটি অভিযোগে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড ও একটি অভিযোগে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়া হয়। ১...