sohel_162130
ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ছাত্রদলের এক কর্মীকে মারধর করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

সোমবার বেলা ১২টার দিকে সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

মারধরের শিকার মো. ইসরাফিল চৌধুরী সোহেল জাবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক। জাবির অর্থনীতি বিভাগের ৪০তম ব্যাচের ছাত্র সোহেলের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টাসহ আশুলিয়া থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন জাবি ছাত্রলীগের নেতারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, সোমবার জাবির সমাজবিজ্ঞান অনুষদে ক্লাস করতে আসেন সোহেল। এ সময় শহীদ রফিক-জব্বার হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নওশাদ আলম অনিকের নেতৃত্বে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তাকে মারধর করেন।

সোহেলকে মারধর করা অন্যরা হলেন, ছাত্রলীগের উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ইশতিয়াক আহমেদ, আল বেরুনী হল (সম্প্রসারিত ভবন) সভাপতি সুমন সরকার, সহ-সম্পাদক অনিক কুমার।

পরে তাকে প্রক্টর অফিসের নিরাপত্তা কর্মীদের হাতে তুলে দেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। মারধরে আহত সোহলেকে জাবির মেডিকেল সেন্টারে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের শহীদ রফিক-জব্বার হল সভাপতি নওশাদ আলম অনিক ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, অনেকদিন ধরেই সোহেল ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীসহ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের নামে আপত্তিকর মন্তব্য করে আসছিল। এছাড়া সে নারীঘটিত অপরাধসহ নানা অপকর্মে জড়িত। তাই তাকে চড়-থাপ্পড় দেওয়া হয়েছে।

নওশাদ আলম অনিকের বিরুদ্ধে এর আগেও আরেক ছাত্রদল নেতাকে মারধরের অভিযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে জাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেল ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, সোহেল প্রধানমন্ত্রীসহ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের কটূক্তি করেছে। তাই ছেলেরা তাকে একটু চড়-থাপ্পড় দিয়েছে।

জাবি ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ওবায়দুল্লাহ শুভর অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রত্যক্ষ মদদে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা আমাদের নেতাকর্মীদের হামলা চালাচ্ছে। ছাত্রলীগ নেতারা তাদের কর্মীদের নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে তাদেরকে পাল্টা জবাব দেওয়া হবে। জাবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. তপন কুমার সাহা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেছেন, সোহেলের বাবা বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরিরত। তাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন একটি তদন্ত কমিটি করবে। আমরা সেই নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করব।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে শামসুল আলম নামে এক শিক্ষার্থী আটক করে পুলিশে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

অর্ণব ভট্টপ্রথম পাতা
ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ছাত্রদলের এক কর্মীকে মারধর করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। সোমবার বেলা ১২টার দিকে সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে এ ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার মো. ইসরাফিল চৌধুরী সোহেল জাবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক। জাবির অর্থনীতি বিভাগের ৪০তম...