ক্রীড়া প্রতিবেদক ।
আগে বলা হতো, ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো নাকি দিয়েগো ম্যারাডোনার দারুণ বন্ধু। এবার তাঁর দিকে তীর ছুড়লেন আর্জেন্টাইন এই ফুটবল কিংবদন্তি।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

উল্লেখ্য, দুর্নীতির অভিযোগে ফিফার সাবেক সভাপতি সেপ ব্লাটার ছয় বছরের জন্য নিষিদ্ধ হওয়ার পর ২০১৬ সালের নির্বাচনে নতুন প্রেসিডেন্ট হন ইনফান্তিনো।

ম্যারাডোনার দাবি, এতো বড় পরিবর্তন হলেও ফুটবলারদের প্রতি ফিফার ব্যবহার খুব খারাপ। সে কারণেই কিংবদন্তি ফুটবলারদের নিয়ে ফিফা যে পরিকল্পনা করেছিল, সেখান থেকে সরে গেছেন তিনি।

আর্জেন্টাইন এই কিংবদন্তি বলেন, ‘আমাকে কিংবদন্তিদের দলের অধিনায়ক করা হয়েছিল। কিন্তু ইনফান্তিনোকে চিঠি লিখে আমি পদত্যাগ করেছি। কারণ ব্লাটার এবং হুলিয়ো গ্রোন্দোনা চলে যাওয়ার পরও ফিফা একটুও বদলায়নি।’

তিনি আরো বলেন, ‘একবার ওরা আমাকে হোটেলে একই রুমে দু’জনের সঙ্গে থাকতে বলল। আমরা যেন কুকুরছানা। যাদের একটু খেতে দিলেই চলবে। আমাদের মতো সাবেকদের সম্মান জানানোর কোনো ইচ্ছাই ওদের মধ্যে দেখিনি।’
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2019/02/102.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2019/02/102-300x254.jpgশিশির সমরাটখেলাধুলা
ক্রীড়া প্রতিবেদক । আগে বলা হতো, ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো নাকি দিয়েগো ম্যারাডোনার দারুণ বন্ধু। এবার তাঁর দিকে তীর ছুড়লেন আর্জেন্টাইন এই ফুটবল কিংবদন্তি।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। উল্লেখ্য, দুর্নীতির অভিযোগে ফিফার সাবেক সভাপতি সেপ ব্লাটার ছয় বছরের জন্য নিষিদ্ধ হওয়ার পর ২০১৬ সালের নির্বাচনে নতুন প্রেসিডেন্ট হন ইনফান্তিনো। ম্যারাডোনার দাবি, এতো...