8631e4e05d31b74b9d13ed444ff70ddf-5
সমুদ্র দর্শনে গিয়েছিলেন। সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটে জানিয়েছিলেন সে কথা। কিন্তু এরপর হঠাৎ হারিয়ে গেলেন নাট্যকার ফারুক হোসেন। ১৯ জুলাই সমুদ্রস্নানে নেমে নিখোঁজ হন তিনি।
নির্মাতাদের ফেসবুক টাইমলাইনে বারবার উঠে আসছে ফারুকের কথা, যাঁদের সঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করেছিলেন তিনি। নির্মাতা হিমেল আশরাফের সুলতানা বিবিয়ানার চিত্রনাট্য লিখেছিলেন ফারুক। ফারুকের খোঁজে তিনি ছুটে গেছেন কক্সবাজার পর্যন্ত। সেখান থেকে ফেরার পথে হিমেল আশরাফ লেখেন, ‘ভাই, আজ যদি আমি সাগরে ভাসতাম আর আপনি আমাকে খুঁজতে কক্সবাজার আসতেন, তবে আমি জানি, আমাকে খুঁজে না পেয়ে আপনি বাড়ি ফিরতেন না। কিন্তু আপনাকে সাগরে রেখেই আমাকে চলে যেতে হচ্ছে। আপনার সঙ্গে এখানেই সবার পার্থক্য। যেখানেই থাকেন, যেভাবেই থাকেন, ভালো থাকেন। ভালোবাসি, ভাই।’
ফারুককে নিয়ে নির্মাতা অনিমেষ আইচ ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আমি মানুষ এবং বন্দী! ফারুক হোসেন, প্লিজ, কিছু একটা করো। ভাই তোরে ভীষণ মিস করছি। আয় রে ভাই, আর টুইস্ট ভালো লাগছে না।’
নির্মাতা সালাহউদ্দিন লাভলুর সঙ্গে বেশ কিছু কাজ করেছিলেন ফারুক হোসেন। তিনি হারিয়ে যাওয়ার পরপরই লাভলু ফেসবুকে লেখেন, ‘আমার ওয়ারিশ ছবির লেখক ফারুক হোসেন। ও এই ছবির গানও লিখেছিল—চলো হাত ধরে মরে যাই/ চলো যাই সাগরে/ অনেক গভীরে/ তারপর ইচ্ছে করে ডুবে যাই। সামিনা চৌধুরী রেকর্ডিংয়ের সময় ফারুককে বলেছিল, “এই ছেলে, এ রকম গান কেন লিখেছ? পাগল ছেলে!” আমারও আজ প্রশ্ন, ফারুক, তুমি কেন এই গান লিখেছিলে?’

বাহাদুর বেপারীবিনোদন
সমুদ্র দর্শনে গিয়েছিলেন। সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটে জানিয়েছিলেন সে কথা। কিন্তু এরপর হঠাৎ হারিয়ে গেলেন নাট্যকার ফারুক হোসেন। ১৯ জুলাই সমুদ্রস্নানে নেমে নিখোঁজ হন তিনি। নির্মাতাদের ফেসবুক টাইমলাইনে বারবার উঠে আসছে ফারুকের কথা, যাঁদের সঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করেছিলেন তিনি। নির্মাতা হিমেল আশরাফের সুলতানা বিবিয়ানার চিত্রনাট্য লিখেছিলেন ফারুক। ফারুকের খোঁজে...