image_265052.2015-09-05_6_597118
জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, প্রত্যেক প্রতিবন্ধীর কিছু না কিছু করার ক্ষমতা রয়েছে। সে ক্ষমতা সমাজের উন্নয়নে সম্পৃক্ত করতে হবে।
তিনি বলেন, প্রতিবন্ধীদের প্রতি করুণার দৃষ্টি নয়, সমাজে তাদের যে অধিকার রয়েছে তা বাস্তবায়ন করতে হবে। সকলের মিলিত প্রচেষ্টা ও অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে সমাজ এগিয়ে যাবে।
তথ্যমন্ত্রী আজ শনিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে শারীরিক প্রতিবন্ধীদের সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
সুপার নিউমেরারির অধ্যাপক ড. সাখাওয়াত আলী খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান, ইউরোপীয় ইউনিয়নের হেড অব ইউনিট-হেড অব কো-অপারেশন মারিও রনকনির ও সাইটসেভারস-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর খন্দকার আরিফুল ইসলাম।
মন্ত্রী বলেন, সমাজে নারীদের অবস্থান পাকাপোক্ত করতে হবে। পুরুষরা নারীদের প্রতিবন্ধী ও বোঝা মনে করে। নারীদেরকে সঙ্গে নিয়ে বাইরে বের হতে চায় না, সবসময় ঘরের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখতে চায়। এই দৃষ্টিভঙ্গি সম্পূর্ণরূপে পাল্টাতে হবে।
ইনু বলেন, অতীতের যেসব সরকার এই দেশে শাসনকার্য পরিচালনা করে গেছেন তারা জনগণের আশা-আকাঙক্ষাকে তোয়াক্কা না করে মনগড়াভাবে দেশ চালিয়েছেন। তারা সংবিধানের মৌলিক চেতনাকে অবমূল্যায়ন করেছেন। বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার সংবিধানের প্রতি অনুগত।
মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান বলেন, রুবেল, তাসকিন ক্রিকেট খেলে যদি বিজ্ঞাপনের নায়ক হতে পারে তবে প্রতিবন্ধী ক্রিকেটাররা কেন বিজ্ঞাপনের নায়ক হতে পারবে না।

অর্ণব ভট্টজাতীয়
জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, প্রত্যেক প্রতিবন্ধীর কিছু না কিছু করার ক্ষমতা রয়েছে। সে ক্ষমতা সমাজের উন্নয়নে সম্পৃক্ত করতে হবে। তিনি বলেন, প্রতিবন্ধীদের প্রতি করুণার দৃষ্টি নয়, সমাজে তাদের যে অধিকার রয়েছে তা বাস্তবায়ন করতে হবে। সকলের মিলিত প্রচেষ্টা ও অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে সমাজ এগিয়ে যাবে। তথ্যমন্ত্রী আজ...