image_269945.hasi1
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিবন্ধীদের প্রতি আরো সহানুভূতিশীল হতে এবং তাদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশে সুযোগ দেয়ার জন্য সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, দৃষ্টি অথবা শ্রবণ প্রতিবন্ধী অথবা অটিস্টিক যাই হোক না কেন তারা সমাজের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তাদের প্রতি আরো মনোযোগ দিতে হবে। তাই আমি প্রতিবন্ধীদের প্রতি সহানুভূতিশীল হতে এবং সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিতে ও তাদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশে সুযোগ দেয়ার জন্য সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।
বাংলাদেশ ন্যাশনাল ব্লাইন্ড ক্রিকেট টিম ও বাংলাদেশ স্পেশাল অলিম্পিক টিমের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তারা আজ রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি একথা বলেন।
দেশে খেলাধুলার উন্নয়নে তাঁর সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের বর্ণনা দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, যারা ভালো খেলবে সরকার তাদের সমর্থন দিয়ে যাবে।
তিনি বলেন, কে প্রতিবন্ধী, আর কে প্রতিবন্ধী নয়, সরকারের কাছে এটি কোন বিষয় নয়। বরং যারা ক্রীড়াঙ্গনে ভালো করবে তারা অবশ্যই সরকারের কাছ থেকে সহযোগিতা পাবে। খেলাধুলাকে সরকারের একটি শ্বাশত নীতি হিসেবে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকার ইতোমধ্যে স্কুল পর্যায়ে খেলাধুলা চালু করেছে।
তিনি বলেন, তাঁর সরকার প্রতিবন্ধীদের জন্য একটি ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণ করছে। এই কমপ্লেক্সে প্রতিবন্ধী খেলোয়াড়দের জন্য সকল সুযোগ-সুবিধা থাকবে।
প্রধানমন্ত্রী এ বছরের ১১ থেকে ১৩ জুন কোলকাতায় অনুষ্ঠিত ‘ট্রি-বাংলা ফ্রেন্ডশিপ ইন্টারন্যাশনাল ব্লাইন্ড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট’-এ যৌথ চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় বাংলাদেশ ন্যাশনাল ব্লাইন্ড ক্রিকেট টিমের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের আন্তরিক অভিনন্দন জানান।
তিনি বাংলাদেশ স্পেশাল অলিম্পিক টিমকেও অভিনন্দন জানান। তারা এ বছরের ২৫ জুলাই থেকে ২ আগস্ট পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের লস এ্যাঞ্জেলসে অনুষ্ঠিত স্পেশাল অলিম্পিক গেমে ১৮টি স্বর্ণ, ২২টি রৌপ্য এবং ১৪টি ব্রোঞ্জ পদক লাভ করেছে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ব্লাইন্ড ক্রিকেট টিম ও বাংলাদেশ স্পেশাল অলিম্পিক টিম এই দুই টুর্নামেন্টের সাফল্য অর্জনের মাধ্যমে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে।
অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ স্পেশাল অলিম্পিক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আশ্রাফউদ্দৌলা, বাংলাদেশ স্পেশাল অলিম্পিকের চেয়ারম্যান ড. শামীম মতিন চৌধুরী, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ব্লাইন্ড ক্রিকেট টিমের (বিএনবিসি) চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ, বিএনবিসি’র ম্যানেজার এম তাজউদ্দিন এবং সাবেক জাতীয় মহিলা ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়ন কামরুন নাহার ডানাও বক্তব্য রাখেন। মঞ্চে আরো উপস্থিত ছিলেনÑ যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ ন্যাশনাল ব্লাইন্ড ক্রিকেট টিম ও বাংলাদেশ স্পেশাল অলিম্পিক টিমের প্রত্যেক খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাকে এক লাখ টাকার একটি করে চেক ও কিছু উপহার প্রদান করেন।

শুভ সমরাটজাতীয়
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিবন্ধীদের প্রতি আরো সহানুভূতিশীল হতে এবং তাদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশে সুযোগ দেয়ার জন্য সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, দৃষ্টি অথবা শ্রবণ প্রতিবন্ধী অথবা অটিস্টিক যাই হোক না কেন তারা সমাজের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তাদের প্রতি আরো মনোযোগ দিতে হবে। তাই আমি প্রতিবন্ধীদের প্রতি সহানুভূতিশীল হতে এবং...