2
নিজস্ব প্রতিবেদক ।
বিতর্ক হচ্ছে প্রচণ্ড রকমের একটি যুদ্ধ; যে যুদ্ধে কামান, স্টেনগান, বোমা বা রক্তারক্তি নেই। আবার কোনো জয়-পরাজয়ও নেই। কিন্তু ফলাফল অত্যন্ত মধুর।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।
এই বিতর্কেই যুক্তি ও বুদ্ধির মাধ্যমে মেধাকে বিকশিত করা যায়। বিতর্ক নেতৃত্ব বিকাশেরও পথ দেখায়। যদি তরুণসমাজকে যুক্তিতে বিশ্বাসী করা যায়, তাহলে তাদের আর বিপথগামী হওয়ার আশঙ্কা নেই।

গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ (ডিআরএমসি)-বসুন্ধরা খাতা জাতীয় বিতর্ক উৎসব ২০১৭-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। কলেজের রেমিয়েন্স ডিবেটিং সোসাইটি (আরডিএস) এই উৎসবের আয়োজন করেছে। এই আয়োজনের টাইটেল স্পন্সর বসুন্ধরা খাতা এবং প্রিন্ট মিডিয়া পার্টনার দেশের জনপ্রিয় দৈনিক কালের কণ্ঠ। এবারের উৎসবের স্লোগান ‘বিতর্ক হোক তারুণ্যের মশাল’। অষ্টমবারের মতো এই আয়োজনে দেশের স্বনামধন্য প্রায় ৭০টি স্কুল ও কলেজ তিন দিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে।

প্রধান অতিথির বত্তৃদ্ধতায় প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আবদুল মান্নান ভূঁইয়া বলেন, ‘বিতর্ক সিদ্ধান্ত গ্রহণের একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। বিতর্ক সত্য নির্ণয় করে না, কিন্তু সত্য উদ্ঘাটনের পথ দেখায়। বিতর্কের লক্ষ্য সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে কিভাবে যৌক্তিকতার মাধ্যমে বক্তব্য উপস্থাপন করা যায় তা শেখা। এ ছাড়া দেশ-বিদেশের বিভিন্ন খবর জেনেও তা উপস্থাপন করা যায়। বিতর্ক বলার ক্ষমতা ও আস্থা বাড়িয়ে দেয়। আর এর মাধ্যমেই নেতৃত্ব বিকাশের পথ সৃষ্টি হয়। ’

বসুন্ধরা গ্রুপের ভূয়সী প্রশংসা করে অধ্যক্ষ বলেন, “বিতর্ক একটি সামাজিক কাজ। এখান থেকে যদি একটি কৃতী ছেলেও বেরিয়ে আসে তাও বড় ব্যাপার। এ ধরনের আয়োজনে সাধারণত কেউ পৃষ্ঠপোষকতা করে না। কিন্তু বসুন্ধরা গ্রুপকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ, তারা এ বিষয়ে সহযোগিতা করছে। বসুন্ধরা গ্রুপের স্লোগান—‘দেশ ও মানুষের কল্যাণে’। এই আয়োজনকে পৃষ্ঠপোষকতার মাধ্যমে তারা তাদের স্লোগানকেই স্মরণ করিয়ে দিল। ”

বিশেষ অতিথির বত্তৃদ্ধতায় বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক প্রধান অর্থনীতিবিদ বিরুপাক্ষ পাল বলেন, ‘বিতর্ক একটি

শক্তিশালী মাধ্যম। এর মাধ্যমে সমাজকে পরিবর্তন করা যায়। বিতর্ক মানে বিভিন্ন চিন্তার সমাবেশ। এই বিতর্ক নেতৃত্ব বিকাশের পথ দেখায়। অনেকেই মনে করেন, বেশি বেশি পড়লেই ভালো ছাত্র হওয়া যায়। তা নয়। আর সব কিছু তো পড়াও সম্ভব নয়। বিতর্কের মাধ্যমে সব কিছুর একটি পুঞ্জীভূত রূপ কয়েক মিনিটে উপস্থাপন করা যায়। তাই শিক্ষার্থীদের মনে রাখতে হবে, জীবনটা শুধু চাকরির জন্য নয়, সমাজকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্যও। ’

বিশেষ অতিথির বত্তৃদ্ধতায় বসুন্ধরা গ্রুপের পেপার সেক্টরের মহাব্যবস্থাপক (বিপণন ও ব্যবসা উন্নয়ন) মো. তৌফিক হাসান বলেন, ‘বসুন্ধরা খাতা এত বড় একটি প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে সংযুক্ত হতে পারায় আমরা গর্বিত। আজকের বিতর্ক প্রতিযোগিতার স্লোগানের সঙ্গেও বসুন্ধরা গ্রুপের স্লোগানের একটি সংযোগ আছে। বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান মহোদয়ও সব সময় তারুণ্যকে উত্সাহিত করার পক্ষে। বিতর্ক মানুষকে সামাজিকভাবে শক্তিশালী করে। যোগাযোগদক্ষতা বাড়ায়। মানুষকে যুক্তিবাদী করার সঙ্গে সামাজিক অবক্ষয় রোধ করে। বিতর্ক হচ্ছে সেই মাধ্যম, যার মাধ্যমে নিজেদেরকে গড়ে নেওয়া যায়। ’

উৎসবের আহ্বায়ক ও উপাধ্যক্ষ নিশাত হাসান বলেন, ‘সহশিক্ষা কার্যক্রমের মধ্যে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া উচিত বিতর্কে। এতে বাকশিল্প বিকশিত হয়। যুক্তি ও বুদ্ধির মাধ্যমে মেধাকে বিকশিত করা যায়। এই বিতর্কে আবেগ নয়, বুদ্ধি যাচাই করা হয়। যদি তরুণসমাজকে যুক্তিতে বিশ্বাসী করা যায় তাহলে কেউ বিপথগামী হবে না। ’

আয়োজকরা জানান, চারটি লেভেলে এই বিতর্ক প্রতিযোগিতা হবে। গতকাল অনুষ্ঠিত হয় স্কুল লেভেলের (নবম ও দশম শ্রেণি) প্রতিযোগিতা। এতে অংশ নেয় ২৪টি স্কুল। আজ শুক্রবার হবে শিশু লেভেল (ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি) ও কলেজ লেভেলের (একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণি) প্রতিযোগিতা। শিশু লেভেলে ৩২টি স্কুল ও কলেজ লেভেলে ২৪টি স্কুল অংশ নেবে। উৎসবের শেষ দিন কাল শনিবার সব লেভেলের চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া শেষ দিন থাকবে পাবলিক স্পিকিং প্রতিযোগিতা। এতে যেকোনো বয়সের প্রতিযোগীরা অংশ নিতে পারবে।

গতকালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন আরডিএস সভাপতি সেজান মাহমুদ প্রান্ত ও সাধারণ সম্পাদক মোসাদ্দেক মিম।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/08/241.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/08/241.jpgশিশির সমরাটশেষের পাতা
নিজস্ব প্রতিবেদক । বিতর্ক হচ্ছে প্রচণ্ড রকমের একটি যুদ্ধ; যে যুদ্ধে কামান, স্টেনগান, বোমা বা রক্তারক্তি নেই। আবার কোনো জয়-পরাজয়ও নেই। কিন্তু ফলাফল অত্যন্ত মধুর। খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। এই বিতর্কেই যুক্তি ও বুদ্ধির মাধ্যমে মেধাকে বিকশিত করা যায়। বিতর্ক নেতৃত্ব বিকাশেরও পথ দেখায়। যদি তরুণসমাজকে যুক্তিতে বিশ্বাসী করা যায়,...