1437307773

নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে প্রয়াত জনপ্রিয় কথা সাহিত্যক হুমায়ূন আহমেদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী রবিবার গাজীপুরের নুহাশ পল্লীতে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে তার কবরে পুস্পস্তবক অর্পন ও দোয়া মাহফিল হয়েছে।

সকাল সোয়া ১১টার দিকে হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন তার দুই পুত্র সন্তান নিষাদ ও নিনিদকে নিয়ে নুহাশ পল্লীতে আসেন। পরে তিনি সন্তানদের নিয়ে হুমায়ূন আহমেদের কবর জিয়ারত করে। এ সময় হুমায়ূন ভক্তরা পুস্পস্তবক অর্পন করেন এবং দোয়ায় শরিক হন।

এর আগে মেহের আফরোজ শাওন বলেন, আমি ও আমার দুই সন্তান কোনো নির্দিষ্ট দিনে নুহাশ পল্লীতে আসি না। প্রত্যেক মাসে অন্তত তিনবার আসি। সারাবছরই আমরা তাকে স্বারণ করি। আজকে (১৯ জুলাই) জন্য আলাদা করে বলার কিছু নাই। গত সাত দিন ধরে বা প্রতি বছর ১৯ জুলাই আমি একটা প্রশ্নের সম্মুখিন হই, আমাদের কর্মসূচি কি? মৃত্যুবার্ষিকী নিয়ে আমি কোনো কর্মসূচি করতে চাই না। আমার কাছে মৃত্যুবার্ষিকীটা একেবারেই পারিবারিক একটা সময়। হুমায়ূন আহমদের প্রিয় মানুষ তার বাবার মৃত্যুবার্ষিকীতে যা করতেন। তিনি ঘরোয়াভাবে কোরানখানি ও দোয়ামাহফিল করতেন, রোজার মাস থাকলে তার প্রিয় মানুষের নিয়ে, এতিম বাচ্চাদের নিয়ে ইফতার করতেন। এটা এই নূহাশ পল্লীর মাঠেই হতো। হুমায়ুন আহমেদ তার প্রিয় মানুষটি চলে যাওয়ার দিন যেভাবে পালন করতেন আমিও আমার প্রিয় মানুষটির জন্য সেভোবেই করি প্রতিবছর। এবার ১৯ জুলাই ঈদের পরদিন হয়েছে, ঈদের দিন হবার সম্ভবনাও ছিল। সে জন্য আমরা সবাই মিলে আলাপ আলোচনা করে ১৩ জুলাই কোরআনখানি, মিলাদ মাহফিল করেছি। নূহাশ পল্লীর আশপাশের এতিমখানার এতিম বাচ্চারা আমাদের সাথে ইফতার করেছে।

দুপুর পৌনে তিনটার দিকে হুমায়ুন আহমেদের ভাই ড. অধ্যাপক মো.জাফর ইকবাল, ছোটভাই কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব এবং তিন বোন সুফিয়া হায়দার, মমতাজ শহীদ, রোকসানা আহমেদসহ তাদের সন্তানরা নুহাশপল্লীতে যান এবং কবর জিয়ারত করেন।

এছাড়া দুপুরে ‘হিমু পরিবহন’-এ করে রাজধানী শাহবাগ থেকে অর্ধশতাধিক ‘হিমু’ নুহাশ পল্লীতে পৌঁছেন। পরে তারা হুমায়ুন আহমেদের কবর জিয়ারত ও পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।

এদিকে সকাল থেকেই বৃষ্টি উপেক্ষা করে শত শত ভক্ত নুহাশপল্লীতে ভিড় জমাতে শুরু করেন। তাদের অনেকেই প্রিয় লেখকের কবরে ফুল দেন এবং নিশ্চুপ দাঁড়িয়ে থেকে তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

শুভ সমরাটশেষের পাতা
নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে প্রয়াত জনপ্রিয় কথা সাহিত্যক হুমায়ূন আহমেদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী রবিবার গাজীপুরের নুহাশ পল্লীতে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে তার কবরে পুস্পস্তবক অর্পন ও দোয়া মাহফিল হয়েছে। সকাল সোয়া ১১টার দিকে হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন তার দুই পুত্র সন্তান নিষাদ...