বিশেষ প্রতিবেদক ।
নার্স নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে আরিফুল ইসলাম ও সাইফুল ইসলাম নামে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের দুই সিনিয়র স্টাফ (ব্রাদার) গ্রেফতার হয়েছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্মৃতি চিরন্তনের পাশের রাস্তায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে। তাদের বিরুদ্ধে শুক্রবার শাহবাগ থানায় মামলা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানা পুলিশের পরির্দশক ( অপারেশন) আবুল কালাম আজাদ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসবাদের জন্য ৭ দিনের আবেদন জানিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তবে আদালতের নির্দেশে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আগামী রবিবার রিমান্ড শুননি হবে বলে তিনি জানান।

গ্রেফতারকৃত সাইফুল ইসলাম বাংলাদেশ নার্সেস অ্যাসোসিয়েশন (বিএনএ) ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) শাখার নির্বাচিত ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক ও আরিফুল ইসলাম স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের (স্বানাপ আনিস গ্রুপ) যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। এদের একজন ঢামেক জরুরি বিভাগে ও অপরজন মেডিসিন ওয়ার্ডে কর্মরত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৬ অক্টোবর রাজধানীর ১০টি কেন্দ্রে মোট চার হাজার ছয়শ সিনিয়র স্টাফ নার্স (ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স অ্যান্ড মিডওয়াইফারি তিন হাজার ছয়শ ও মিডওয়াইফ এক হাজার) নিয়োগ পরীক্ষার বিপরীতে ১৬ হাজার ৯০০ জন নার্স অংশগ্রহণ করেন। শিউলি, হাসনাহেনা, রজনীগন্ধা, কামিনী নামে ৪ সেটের প্রশ্নপত্র ছাপে পিএসসি। কিন্তু সব সেটের প্রশ্ন ফাঁস হয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফাঁস হওয়া প্রশ্ন পরীক্ষার আগে পাওয়া যায়। পরবর্তীতে প্রশ্নপত্র ফাঁসের প্রমাণ পেয়ে অনিবার্য কারণে পরীক্ষা বাতিল করে পিএসসি কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/11/625.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/11/625-300x300.jpgজান্নাতুল ফেরদৌস মেহরিনশেষের পাতা
বিশেষ প্রতিবেদক । নার্স নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে আরিফুল ইসলাম ও সাইফুল ইসলাম নামে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের দুই সিনিয়র স্টাফ (ব্রাদার) গ্রেফতার হয়েছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্মৃতি চিরন্তনের পাশের রাস্তায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে। তাদের বিরুদ্ধে শুক্রবার শাহবাগ থানায় মামলা...