1437578611
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, পর্যায়ক্রমে দেশের প্রতি ইঞ্চি মাটিকে ডিজিটাল কানেকটিভিটির আওতায় আনা হবে।

বুধবার ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি ইনফো সরকার-৩ প্রকল্প অনুমোদনের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জনগণের দোরগোড়ায় প্রযুক্তির সুফল পৌঁছে দিতে এবং সরকারের সঙ্গে আরো বৃহদাকারে জনগণের সংযোগ স্থাপনে আজ এক নতুন দিগন্তের দ্বার উন্মোচন হলো। ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে আরো একধাপ এগিয়ে গেল শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার। ইনফো সরকার-৩ প্রকল্পের অনুমোদনের মাধ্যমে ব্যাপক কর্মসংস্থানের পাশাপাশি সারাদেশকে আরো বেশী পরিমাণে আমরা ডিজিটাল কানেকটিভিটির আওতায় নিয়ে আসতে সক্ষম হলাম।

তিনি বলেন, সামাজিক অগ্রগতি এবং জনগণের সন্তুষ্টি অর্জন বর্তমান সরকারের মূল লক্ষ্য। পাশাপাশি দক্ষতা ও যোগাযোগ বৃদ্ধির মাধ্যমে তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতকরণও সরকারের অভিষ্ট লক্ষ্য। তাই সরকার ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত জনগণকে ইন্টারনেট বিশ্বে নিয়ে যেতে চায়, চায় আধুনিক পেশার সঙ্গে সংশ্লেষ ঘটাতে।

সাড়ে ৮ হাজার কিলোমিটার ফাইবার অপটিক কেবলের মাধ্যমে ইনফো সরকার-৩ প্রকল্পের মাধ্যমে সারাদেশের ১ হাজার ২শ’ ইউনিয়নকে দ্রুত গতির ইন্টারনেট সংযোগের আওতায় আনা হবে। এছাড়াও ৭ বিভাগ, ৬৪ জেলা, ৬৪ উপজেলা, ৩১৯ পৌরসভা এবং ১শ’ টি কলেজে (মোট ৫৫৪টি) বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও) সেন্টার স্থাপন করা হবে। এই ৭ বিভাগ, ৬৪ জেলা এবং ১শ’ টি কলেজকে (মোট ১৭১ টি) ভিডিও কনফারেন্সিং সিস্টেমের আওতায় আনা হবে।

১০ গিগাবাইট পার ইথারনেট (১০ এঊ) -এর মাধ্যমে জেলা আইসিটি সেন্টার থেকে বিভাগীয় সদরদপ্তর ও ন্যাশনাল ডেটা সেন্টারে এবং ইউনিয়ন আইসিটি সেন্টার থেকে জেলা আইসিটি সেন্টারে ব্যকবোন নেটওয়ার্ক ব্যান্ডউইডথ বিস্তৃত করা হবে। ২শ’ উপজেলায় উপজেলা আইসিটি সেন্টারের ব্যাকবোন নেটওয়ার্ক আপ-গ্রেডেশন করা এবং ৬৪টি জেলা আইসিটি সেন্টারে ৬৪টি ব্যাকআপ ব্যাকবোন রাউটার স্থাপন করা হবে।

পাইলটিং ভিত্তিতে ২৫০ ক্লায়েন্টের ডেক্সটপ ক্লাউড চালু, নেটওয়ার্ক সরঞ্জাম পর্যবেক্ষণ ও ব্যবস্থাপনার জন্য নেটওয়ার্ক ম্যানেজমেন্ট সিসটেম বিস্তৃত করা এবং একটি হেল্প ডেক্স স্থাপনের মাধ্যমে জনসাধারণের নেটওয়ার্ক সম্পর্কিত প্রশ্নের সমাধান দেয়া ইত্যাদি বিষয়ও ইনফো সরকার-৩ প্রকল্পের অর্ন্তভুক্ত।

বাংলা গভ নেট ও ইনফো সরকার-২ প্রকল্পের মাধ্যমে এরইমধ্যে প্রায় সব উপজেলাকে ফাইবার অপটিক ক্যাবলের আওতায় আনা হয়েছে। চালু করা হয়েছে উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত ৮শ’ অফিসে ভিডিও কনফারেন্সিং সুবিধা।

হীরা পান্নাজাতীয়
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, পর্যায়ক্রমে দেশের প্রতি ইঞ্চি মাটিকে ডিজিটাল কানেকটিভিটির আওতায় আনা হবে। বুধবার ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি ইনফো সরকার-৩ প্রকল্প অনুমোদনের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, জনগণের দোরগোড়ায় প্রযুক্তির সুফল পৌঁছে দিতে এবং সরকারের সঙ্গে আরো বৃহদাকারে জনগণের সংযোগ...