কিশোরগঞ্জ সংবাদদাতা ।
কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় মা সহ দুই শিশুসন্তানকে কুপিয়ে হত্যা করার খবর পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আব্দুল কাদির মবিন (২৪) নামে এক কলেজ ছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ। খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

নিহতরা হলেন- উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের তারাকান্দি গ্রামের মোশাররফ হোসেনের স্ত্রী তাসলিমা আক্তার (৩০), ছেলে নিলয় (১০) ও মেয়ে রাইসা (৮)। এই ঘটনায় মোশাররফ হোসেনকেও কুপিয়ে আহত করা হয়েছে। তিনি বর্তমানে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আটককৃত মবিন গুরুদয়াল সরকারি কলেজের মাস্টার্সের ছাত্র এবং মোশাররফ হোসেনের ভাতিজা।

পুলিশ ও প্রতিবেশীরা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, আজ শনিবার সকাল পৌনে ৭টার দিকে তাসলিমা আক্তার রান্নাঘরে রান্নার কাজে ব্যস্ত থাকার সময় মবিন একটি ধারালো দা’ হাতে সেখানে প্রবেশ করে এবং তাকে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে। তার চিৎকার শুনে মোশারারফ হোসেন ঘর থেকে বের হয়ে আসলে মবিন তার ওপরও ঝাঁপিয়ে পড়ে। পরে শোবার ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত নিলয় ও রাইসাকেও এলোপাথাড়ি কোপায়। তাসলিমা আক্তার ও নিলয় ঘটনাস্থলেই এবং রাইসা কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হবার পর মারা যায়।

পাকুন্দিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ সামছুদ্দিন আহমদ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, দুটি পরিবারের মধ্যে বাড়ির সীমানা নিয়ে এবং জমি সংক্রান্ত বিরোধ ছিল।প্রাথমিকভাবে এর জেরেই ঘটনাটি সংঘটিত হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। তিনি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে আরও জানান, লাশ তিনটির সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে এবং ময়নাতদন্তের জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলে ওসি নিশ্চিত করেছেন।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/12/HATTA.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/12/HATTA-300x253.jpgশিশির সমরাটস্বদেশের খবর
কিশোরগঞ্জ সংবাদদাতা । কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় মা সহ দুই শিশুসন্তানকে কুপিয়ে হত্যা করার খবর পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আব্দুল কাদির মবিন (২৪) নামে এক কলেজ ছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ। খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। নিহতরা হলেন- উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের তারাকান্দি গ্রামের মোশাররফ হোসেনের স্ত্রী...