Brammoman
রাজধানীর সবুজবাগ থানা এলাকায় দুটি কারখানায় অভিযান চালিয়ে অনুমোদনবিহীন ও নোংরা পরিবেশে আইসক্রিম তৈরির দায়ে দুই মালিকের জেল-জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

দ-প্রাপ্ত দুই মালিক হলেন- ডানিশ আইসক্রিম ফ্যাক্টরির মালিক মো. মজিবর রহমান (৪১) ও তৃপ্তি আইসক্রিম ফ্যাক্টরির মালিক মো. আনোয়ার হোসেন (৩২)।

রবিবার দুপুরে র‌্যাব-২ এর একটি দল ভ্রাম্যমাণ আদালত নিয়ে এ অভিযান চালায়।

অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন। এ সময় বিএসটিআই এর ফিল্ড অফিসার মো. সাহিদুর ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

র‌্যাব-২ এর উপ-পরিচালক মো. দিদারুল আলম ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই এলাকার দুটি কারখানায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ডানিশ আইসক্রিম ফ্যাক্টরি থেকে বিএসটিআই-এর অনুমোদন বিহীন অত্যন্ত নোংরা পরিবেশে আইসক্রিম তৈরি করার সময় ১ লাখ ৫ হাজার পিস আইসক্রিম জব্দ করা হয়।

তিনি আরও জানান, ফ্যাক্টরি দুটিতে ক্ষতিকারক কেমিক্যাল ব্যবহার করে এবং বিএসটিআই এর লোগোবিহীন আইসক্রিম উৎপাদন ও বিতরণ করার প্রমাণ পাওয়া যায়। পরে কারখানার মালিকদের দোষী সাব্যস্ত করে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. হেলাল উদ্দিন কারখানা মালিক মো. মজিবর রহমানকে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদ- দেন।

এছাড়া মো. আনোয়ার হোসেনকে এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের কারাদ- দেন।

ওয়াজ কুরুনীআইন-আদালত
রাজধানীর সবুজবাগ থানা এলাকায় দুটি কারখানায় অভিযান চালিয়ে অনুমোদনবিহীন ও নোংরা পরিবেশে আইসক্রিম তৈরির দায়ে দুই মালিকের জেল-জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। দ-প্রাপ্ত দুই মালিক হলেন- ডানিশ আইসক্রিম ফ্যাক্টরির মালিক মো. মজিবর রহমান (৪১) ও তৃপ্তি আইসক্রিম ফ্যাক্টরির মালিক মো. আনোয়ার হোসেন (৩২)। রবিবার দুপুরে র‌্যাব-২ এর একটি দল ভ্রাম্যমাণ আদালত...