image_265810.pic- (5)
জেলার দীঘিনালা উপজেলার দুর্গম কামুক্যাছড়ার ছাদকছড়া এলাকায় সন্ত্রাসীদের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে ৫টি ভারী অস্ত্র ও সাড়ে ৪ শ রাউন্ড গুলিসহ একজন সন্ত্রাসীকে আটক করেছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। এ সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সন্ত্রাসীদের প্রায় ঘণ্টাব্যাপী গোলাগুলি হয়। সোমবার ভোরের দিকে এই ঘটনা ঘটে। আটককৃত ব্যক্তি জেএসএস (এমএন লারমা) গ্রুপের কর্মী বলে দাবি করা হলেও সংগঠনটির পক্ষ থেকে তা অস্বীকার করা হয়েছে।

নিরাপত্তা বাহিনী সূত্র জানিয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেনাবাহিনী দীঘিনালা জোনের কয়েকটি টহলদল রবিবার রাতেই ওই এলাকায় অবস্থান নেয়। সোমবার ভোরের দিকে সেনাবাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা গুলি করলে সেনাবাহিনীও পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলিবিনিময় হয়। কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

পরে সন্ত্রাসীদের গোপন আস্তানায় তল্লাশি চালিয়ে সেনাবাহিনীর সদস্যরা অস্ত্রগুলো উদ্বার করে এবং বড়শোভা চাকমা (৩০) নামের এক অস্ত্রধারীকে আটক করে। উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ২টি সাব মেশিনগান (এসএমজি), ১টি মেশিনগান, ২টি এসএলআর, ৯টি ম্যাগজিন, ৪৫০ রাউন্ড বিভিন্ন অস্ত্রের গুলি, কয়েক সেট সামরিক পোশাক, মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ প্রভৃতি। অভিযানে নেতৃত্ব দেন দীঘিনালা সেনা জোনের অধিনায়ক লে. কর্নেল মহসিন রেজা। সেনাবাহিনীর অন্তত শতাধিক সদস্য অভিযানে অংশ নেয় বলে জানা গেছে।

সুরুজ বাঙালীপ্রথম পাতা
জেলার দীঘিনালা উপজেলার দুর্গম কামুক্যাছড়ার ছাদকছড়া এলাকায় সন্ত্রাসীদের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে ৫টি ভারী অস্ত্র ও সাড়ে ৪ শ রাউন্ড গুলিসহ একজন সন্ত্রাসীকে আটক করেছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। এ সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সন্ত্রাসীদের প্রায় ঘণ্টাব্যাপী গোলাগুলি হয়। সোমবার ভোরের দিকে এই ঘটনা ঘটে। আটককৃত ব্যক্তি জেএসএস (এমএন লারমা) গ্রুপের...