1443354028
তথ্যের অবাধ প্রবাহ নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি সমাজ ও রাষ্ট্রে জনগণের ক্ষমতায়নকেও প্রতিষ্ঠিত করে।” – আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার সপ্তাহ উপলক্ষে আজ এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এ কথা বলেন।

তথ্য জানার অধিকার সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টি এবং তথ্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে দেশ জুড়ে ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ‘আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার সপ্তাহ’ পালিত হতে যাচ্ছে বলে রাষ্ট্রপতি সন্তোষ প্রকাশ করেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, রাষ্ট্রীয় কার্যক্রমে স্বচ্ছতা-জবাবদিহিতা নিশ্চিতের মাধ্যমে সমাজে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় তথ্য অধিকার আইনের ভূমিকা অপরিসীম।

তিনি বলেন, তথ্য জানা মানুষের অন্যতম মৌলিক ও সাংবিধানিক অধিকার। বর্তমান সরকার তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতকরণের পাশাপাশি জনগণের তথ্য জানার অধিকারকে অগ্রাধিকার দিয়েই ‘তথ্য অধিকার আইন ২০০৯’ প্রণয়ন করেছে। ফলে জনগণ সহজেই প্রায় সব তথ্য সম্পর্কেই জানতে পারছে এবং তথ্য পাওয়ার ক্ষেত্রে তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, তথ্য কমিশন জনগণকে তথ্য অধিকার সম্পর্কে সচেতন করতে সরকারি-বেসরকারি, রেডিও-টেলিভিশনসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সহযোগিতায় ব্যাপক প্রচারের উদ্যোগ নিয়েছে। এর ফলে জনগণ যেমন তথ্য অধিকার সম্পর্কে সচেতন হচ্ছে পাশাপাশি তারা কী করে তথ্য অধিকারের প্রয়োগ ঘটাবে সে সর্ম্পকেও জানতে সক্ষম হচ্ছে। দেশে সুশাসন ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় তথ্য অধিকার আইনের ভূমিকা অপরিসীম।

তিনি বলেন, ‘তথ্য জানার অধিকার সপ্তাহ ২০১৫’ উদযাপন উপলক্ষে গৃহীত কর্মসূচির মাধ্যমে জনগণ তথ্য অধিকার সম্পর্কে সচেতন হবে এবং এর যথার্থ প্রয়োগ ঘটিয়ে রাষ্ট্রের কার্যক্রমকে আরো স্বচ্ছ ও গতিশীল করতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। বাসস।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/09/1443354028.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/09/1443354028-300x300.jpgওয়াজ কুরুনীজাতীয়
তথ্যের অবাধ প্রবাহ নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি সমাজ ও রাষ্ট্রে জনগণের ক্ষমতায়নকেও প্রতিষ্ঠিত করে।' - আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার সপ্তাহ উপলক্ষে আজ এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এ কথা বলেন। তথ্য জানার অধিকার সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টি এবং তথ্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে দেশ জুড়ে ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ‘আন্তর্জাতিক...