untitled-3_161892
শেষ পর্যন্ত ঘুরেফিরে ঢাকা মহানগরীর দুই অংশে সভাপতি পদে এমএ আজিজ ও মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার নামই এলো। গতকাল শনিবার আকস্মিক বৈঠক করে প্রস্তাবটি তৈরি করেছেন দলের কয়েকজন সহ-সভাপতি, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য, কার্যনির্বাহী সদস্য, থানা ও ওয়ার্ড কমিটির নেতারা।

গতকাল শনিবার আজিজ ও মায়া দলের সাধারণ সম্পাদক, জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে তার বেইলি রোডের বাসভবনে এ প্রস্তাবটি দেন এবং এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করতে অনুরোধ জানান। তবে এ ব্যাপারে দলের সাধারণ সম্পাদকের মনোভাব জানা যায়নি।

এ প্রস্তাব নিয়ে আজিজ ও মায়া দলের সভাপতিমণ্ডলীর দু’জন প্রভাবশালী সদস্য, উপদেষ্টা পরিষদের একজন সদস্য ও ঢাকার একজন মেয়রের সঙ্গেও কথাবার্তা বলেছেন। এরই প্রেক্ষাপটে গতকাল মায়ার বেইলি রোডের বাসভবনে নগর নেতারাও বৈঠক করেন। এমএ আজিজ ও মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরীর সম্পর্ক এর আগে কখনও সুখকর ছিল না।

২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন হলেও এখনও কমিটি গঠন হয়নি। ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় সম্পাদক ড. আবদুর রাজ্জাক এবং আন্তর্জাতিক সম্পাদক লে. কর্নেল (অব.) ফারুক খানকে মহানগর কমিটি গঠনের বিষয়ে কার্যকর উদ্যোগ নেওয়ার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। এর ভিত্তিতে দুটি কমিটিও জমা দেন তারা।

তাদের প্রস্তাবিত কমিটিতে ঢাকা দক্ষিণে সভাপতি হিসেবে এমএ আজিজ, সাধারণ সম্পাদক হিসেবে শাহে আলম মুরাদ এবং ঢাকা উত্তরে সভাপতি হিসেবে একেএম রহমতুল্লাহ এমপি, সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সাদেক খানের নাম রয়েছে।

বেশ কয়েকজন নগর নেতার সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, সব মিলিয়ে যোগ্য নেতৃত্বের সংকটে পড়েছে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ। উপযুক্ত নেতা খুঁজে না পাওয়ায় মহানগর কমিটি ঘোষণায় বিলম্ব হচ্ছে। পবিত্র ঈদুল ফিতরের আগে নতুন কমিটি ঘোষণার প্রস্তুতি থাকলেও সেটা সম্ভব হয়ে ওঠেনি।

তুনতুন হাসানঅন্যান্য
শেষ পর্যন্ত ঘুরেফিরে ঢাকা মহানগরীর দুই অংশে সভাপতি পদে এমএ আজিজ ও মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার নামই এলো। গতকাল শনিবার আকস্মিক বৈঠক করে প্রস্তাবটি তৈরি করেছেন দলের কয়েকজন সহ-সভাপতি, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য, কার্যনির্বাহী সদস্য, থানা ও ওয়ার্ড কমিটির নেতারা। গতকাল শনিবার আজিজ ও মায়া দলের সাধারণ সম্পাদক, জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল...