কুমিল্লা অফিস । চান্দিনা প্রতিনিধি
চান্দিনায় ট্রাক চাপায় স্কুলছাত্রী নিহতের ঘটনার বিচারের দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ প্রশাসনের আশ্বাসে প্রত্যাহার করা হয়েছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।
শনিবার দুপুরে তা প্রত্যাহার করা হয়। এর অাগে সকাল থেকে অবরোধ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছিল।
এদিকে শিক্ষার্থীদের দাবিগুলোর মধ্যে যেগুলো যৌক্তিক তা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হবে বলে এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

জানা যায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনায় ট্রাক চাপায় স্কুলছাত্রী আকলিমা নিহতের ঘটনায় বিচারের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। এতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির রায়পুর থেকে চান্দিনার মাধাইয়া পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার জুড়ে যানজট সৃষ্টি হয়।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত মহাসড়কের চান্দিনা ও মুরাদনগর উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা গোমতা এলাকায় ওই অবরোধ করে তারা।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রায় এক ঘণ্টারও বেশি সময় শিক্ষার্থীদের শান্ত করার চেষ্টা করেন চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এসএম জাকারিয়া, মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মরিয়ম মিতু, অতিরিক্ত পুলিশ সুপুর (কুমিল্লা উত্তর) শাখাওয়াত হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপুর (দাউদকান্দি সার্কেল) মহিদুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার জ্যোতির্ময় সাহা, চান্দিনা থানার ওসি মোহাম্মদ শামছুল ইসলাম, মুরাদনগর থানার ওসি মঞ্জুরুল ইসলাম জেলা ও হাইওয়ে পুলিশের প্রায় শতাধিক সদস্য। প্রায় দুই ঘণ্টা অবরোধ চলার পর প্রশাসনের সামনে শিক্ষার্থীরা তাদের দাবি জানায়। তা বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি জানানোর পর অবরোধ প্রত্যাহার করে শিক্ষার্থীরা।

এদিকে মহাসড়কে অবরোধ থাকায় ভোগান্তিতে পড়ে মহাসড়কে চলাচলরত গাড়ি চালক ও যাত্রীরা।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের অভিযোগ, আন্দোলনরত সবাই শিক্ষার্থী না। বহিরাগত কিছু রাজনৈতিক দুষ্কৃতিকারী ছদ্মবেশে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করে আন্দোলন বেগবান করছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাখাওয়াত হোসেন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, আন্দোলনরতদের মধ্যে অনেকেই গোমতা ইসহাকিয়া বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নয়। এখানে বহিরাগতরাও রয়েছে। তবে কোন দুষ্কৃতিকারী যদি আন্দোলনে থাকে তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।

পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের দাবিগুলোর মধ্যে যেগুলো যৌক্তিক তা আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের চেষ্টা করবো।

এদিকে, ঘটনার পর বেলা দেড়টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও বিদ্যালয় পরিদর্শনে এসে শিক্ষার্থীদের সান্ত্বনা দেন কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান মো. রুহুল আমিন ভূইয়া।

প্রসঙ্গত, ৩১ জুলাই (মঙ্গলবার) ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা গোমতা এলাকায় ট্রাক চাপায় স্কুলছাত্রী আকলিমা আক্তার (১৬) নিহত হয়। ওই ঘটনায় আহত হয়েছে আরও দুই শিক্ষার্থী।

আকলিমা মুরাদনগর উপজেলাধীন বাবুটিপাড়া গ্রামের কৃষক আবদি মিয়ার মেয়ে। সে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন গোমতা এলাকার গোমতা ইসহাকিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/08/34.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/08/34-300x300.jpgজান্নাতুল ফেরদৌস মেহরিনশেষের পাতা
কুমিল্লা অফিস । চান্দিনা প্রতিনিধি চান্দিনায় ট্রাক চাপায় স্কুলছাত্রী নিহতের ঘটনার বিচারের দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ প্রশাসনের আশ্বাসে প্রত্যাহার করা হয়েছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। শনিবার দুপুরে তা প্রত্যাহার করা হয়। এর অাগে সকাল থেকে অবরোধ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছিল। এদিকে শিক্ষার্থীদের দাবিগুলোর মধ্যে যেগুলো যৌক্তিক তা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত...