Thumbs_Down
ফেসবুকে ‘লাইক’ বাটন ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। কারো কোনো স্ট্যাটাস, ছবি কিংবা অন্য কোনো পোস্ট পছন্দ হলে ‘লাইক’ দিয়ে আমরা সেগুলোকে স্বাগত জানাই। কিন্তু যখন কোনো কিছু অপছন্দ হয় তখন? এর জন্য লাইকের বিপরীত ‘ডিসলাইক’ বাটন বলতে কিছু ছিল না ফেসবুকে। কিন্তু বহুদিন ধরেই ইউজাররা একটি ডিসলাইক বাটন চেয়ে আসছেন।

মানুষের চাহিদার বিষয়টি বিবেচনা করে ফেসবুকে চূড়ান্তভাবে ‘ডিসলাইক’ বাটন রাখা হচ্ছে। মঙ্গলবার ফেসবুকের প্রধান কার্যালয় থেকে এমনই ঘোষণা দিলেন প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ।

জাকারবার্গ বলেন, “মানুষ বহু বছর ধরে ডিসলাইক বাটন সম্পর্কে আলোচনা করছে। চাহিদার বিষয়টি বিবেচনা করে আমরা অবশেষে এটি নিয়ে কাজ করছি। বৃহত্তর স্বার্থে একটা কিছু করা হবে।”

তিনি বলেন, অনুভূতি প্রকাশের একটি মাধ্যম হিসেবে এই ডিসলাইক অপশনটি চালু করা হচ্ছে।

জাকারবার্গ জানান, খুব শিগগিরিই ব্যবহারকারীরা নিজেরাই এটি যাতে প্রয়োগ করতে পারে সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ অনেকটাই তৈরি।

এই অপশনটি চালু হলে আর মন্তব্য করে অপছন্দের বিষয়টি বোঝাতে হবে না। ‘লাইক’ বাটনের মতই ‘ডিসলাইক’ বাটনে ‘ক্লিক’ করলেই হবে।

২০০৯ সালে লাইক অপশনটি চালুর পর থেকে অনেক ব্যবহারীর পক্ষ থেকেই ডিসলাইক অপশন চালুর জন্য ধারাবাহিকভাবে অনুরোধ করে আসছিলেন।

উল্লেখ্য, ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউবে আগে থেকেই ডিসলাইক অপশন চালু আছে।

তাহসিনা সুলতানাবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
ফেসবুকে ‘লাইক’ বাটন ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। কারো কোনো স্ট্যাটাস, ছবি কিংবা অন্য কোনো পোস্ট পছন্দ হলে ‘লাইক’ দিয়ে আমরা সেগুলোকে স্বাগত জানাই। কিন্তু যখন কোনো কিছু অপছন্দ হয় তখন? এর জন্য লাইকের বিপরীত ‘ডিসলাইক’ বাটন বলতে কিছু ছিল না ফেসবুকে। কিন্তু বহুদিন ধরেই ইউজাররা একটি ডিসলাইক বাটন চেয়ে...