1437978891
ডার্ক চকলেট ডায়াবেটিসের জন্য উপকারী?
চকলেটসহ সব ধররের মিষ্টি জাতীয় খাবার ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ক্ষতিকর। চিনি বা শর্করা সরাসরি রক্তে গিয়ে ব্লাড সুগারের মাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বাড়িয়ে দেয়। তাই চিকিত্সকগণ সাধারণত ডায়াবেটিসের রোগীদের অধিক চিনিযুক্ত খাবার, সফট ড্রিংক, এমনকি অধিক মিষ্টি ফল পরিহার অথবা কম খেতে পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

কিন্তু মজার ব্যাপার হলো বিশেষজ্ঞগণ গবেষণায় দেখেছেন ডার্ক চকলেট বা কালো চকলেট ডায়াবেটিসের জন্য হিতকর। ডার্ক চকলেটের ফ্লাভোনয়েডস নামক এক ধরনের উপাদান রয়েছে। এই ফ্লাভোনয়েডস রক্তের ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স হ্রাস করে, ইনসুলিনের সেনসিটিভিটি বাড়ায়, রক্তের ইনসুলিন ও ব্লাড সুগারের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। কিন্তু সব ধরনের চকলেট থেকে এ ধরনের উপকারিতা পাওয়া যায় না। আর মিল্ক চকলেটে থাকে কম পরিমাণ ফ্লাভোনয়েডস।

এ ব্যাপারে ডেনমার্কের কোপেন হেগেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় উল্লেখ করা হয়, যারা ডার্ক চকলেট বেশি খান তারা সল্টেজ ফুড, মিষ্টি জাতীয় খাবার এবং ফ্যাটিফুড কম খান। কিন্তু যারা মিল্ক চকলেট খেতে অভ্যস্ত তারা অধিক মিষ্টি জাতীয় খাবার ও ফ্যাটি ফুড অধিক আহার করতে পছন্দ করেন। আর গবেষকগণ আরও একটা মজার তথ্য দিয়েছেন। আর তা হচ্ছে, যারা নিয়মিত ডার্ক চকলেট খান তাদের পিজা আহারের প্রবণতা স্বাভাবিকের চেয় ১৫ ভাগ কম। এছাড়া গবেষকগণ এখন বলছেন, ডার্ক চকলেটের ফ্লাভোনয়েডস স্ট্রোকের ঝুঁকি, উচ্চ রক্তচাপ ও হার্ট এ্যাটাকের ঝুঁকি হ্রাসে সহায়ক।

বাহাদুর বেপারীস্বাস্থ্য কথা
ডার্ক চকলেট ডায়াবেটিসের জন্য উপকারী? চকলেটসহ সব ধররের মিষ্টি জাতীয় খাবার ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ক্ষতিকর। চিনি বা শর্করা সরাসরি রক্তে গিয়ে ব্লাড সুগারের মাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বাড়িয়ে দেয়। তাই চিকিত্সকগণ সাধারণত ডায়াবেটিসের রোগীদের অধিক চিনিযুক্ত খাবার, সফট ড্রিংক, এমনকি অধিক মিষ্টি ফল পরিহার অথবা কম খেতে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু...