3_101814
টাকা জমি ও ফ্ল্যাট উদ্ধারে অনুরোধ করবেন না। মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার এবং জঙ্গি ও শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতারে সহায়তা করুন’ দেশের একমাত্র এলিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-র‌্যাব সদর দফতরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের কক্ষে ঢুকলেই চোখে পড়বে তার কক্ষের দেয়ালে কিংবা টেবিলের কাচের নিচে চাপা দিয়ে রাখা হয়েছে অভিনব এই নোটিসটি। কম্পিউটারে কম্পোজ করা এই নোটিসটি দেখে এক কর্মকর্তার কাছে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, র‌্যাব কার্যালয়ে যে ধরনের অভিযোগ আসে তার শতকরা ৯০ ভাগই হচ্ছে পাওনা টাকা, জমি ও ফ্ল্যাট উদ্ধার বিষয়ক। কিন্তু র‌্যাব সৃষ্টির সময় আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন বিধিমালা ১৯৭৯ সংশোধিত অনুচ্ছেদের ৬ অনুযায়ী বিশেষায়িত এই বাহিনীকে সাতটি কাজ নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়। এই কাজের মধ্যে রয়েছে অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, সশস্ত্র জঙ্গি সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার, অবৈধ অস্ত্র গোলাবারুদ বিস্ফোরক উদ্ধার, অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সহায়তা করা, গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ এবং সরকার নির্দেশিত যে কোনো অপরাধের তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করা।

আমরা আমাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালনে জনসাধারণের সহযোগিতা চাই। কিন্তু এ বিষয়গুলো নিয়ে আশানুরূপ সহযোগিতা পাওয়া যায় না। উপরন্তু বেশিরভাগ মানুষ আসে টাকা জমি ও ফ্ল্যাট উদ্ধারের সহযোগিতা চাইতে। এ ব্যাপারে সর্বসাধারণকে সহযোগিতা করতে গেলে র‌্যাবের নিজস্ব কাজে বিঘ্ন ঘটে। গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন বাধাগ্রস্ত হয়। অপর এক কর্মকর্তা বলেন, অনেকটা বাধ্য হয়েছি নোটিস লাগাতে। নইলে লোকজনের অনুরোধে অস্থির হয়ে যাই। টাকা জমি ও ফ্ল্যাট উদ্ধারে এত বেশি অনুরোধ আসে, যা চিন্তার বাইরে। ‘বাংলাদেশ আমার অহংকার’ এই মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে ২০০৪ সালের ২৬ মার্চ যাত্রা শুরু করে এই র‌্যাব। তখন থেকে পেশাদারি মনোভাব, দক্ষতা এবং আন্তরিকতার মাধ্যমে দেশে জঙ্গি দমন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও জনগণের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলছে। নানা চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে এক যুগে পা রেখেছে এই এলিট ফোর্সটি। কিন্তু ২০১৪ সালে ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জে আলোচিত সাত খুনের ঘটনার পর অনেকটা থমকে দাঁড়ায় র‌্যাব। গুটিকয়েক কর্মকর্তার অপকর্মে কলঙ্কের তিলক লাগে র‌্যাবে। হারানো ইমেজ ফিরিয়ে আনতে সতর্কভাবে কাজ শুরু করে স্বাধীনতা পুরস্কার পাওয়া এই প্রতিষ্ঠানটি। কর্মকর্তারা মনে করেন, টাকা জমি কিংবা ফ্ল্যাট উদ্ধারে র‌্যাবের কোনো সুনাম নেই। বরং দুর্নামই হয় বেশি।

নৃপেন পোদ্দারঅন্যান্য
টাকা জমি ও ফ্ল্যাট উদ্ধারে অনুরোধ করবেন না। মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার এবং জঙ্গি ও শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতারে সহায়তা করুন’ দেশের একমাত্র এলিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-র‌্যাব সদর দফতরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের কক্ষে ঢুকলেই চোখে পড়বে তার কক্ষের দেয়ালে কিংবা টেবিলের কাচের নিচে চাপা দিয়ে রাখা হয়েছে অভিনব এই নোটিসটি।...