87693_x2
ঢাকা জিপিও’র সেবার মান দেখতে গতকাল বিকালে ঝটিকা অভিযান চালান ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। বেলা সোয়া তিনটায় প্রতিমন্ত্রী জিপিও’র গেট দিয়ে প্রবেশের পর পরই প্রতিষ্ঠানটির চেহারা যেন পাল্টে যায়। জিপিওতে ২০ মিনিট অবস্থানকালে সেবা নিতে আসা বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে গিয়ে কোন সমস্যা আছে কিনা জানতে চান তিনি। ২১ নং কাউন্টারে জিপিও’র এক নারী কর্মীর কাছে প্রতিমন্ত্রী তার কাজকর্মের বিবরণ শোনেন। এরপর নতুন করে স্থাপিত তথ্যকেন্দ্রের সামনে গিয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে কি কি তথ্য যোগান দেয়া হচ্ছে ওই সম্পর্কে শোনেন। এরপর সঞ্চয়পত্রের কাউন্টারের দিকে যান প্রতিমন্ত্রী। তবে তারানা হালিম আসার খবর পৌঁছায় ডাক অধিদপ্তরের ডিজি এবিএম হুমায়ুন ও জিপিও প্রধান ফরিদ আহমেদ এসে যোগ দেন। তারা প্রতিমন্ত্রীকে বিভিন্ন বিষয়ে ব্রিফ করেন। এক সেবাপ্রার্থীর অভিযোগের ভিত্তিতে জিপিও’র ভেতরে নষ্ট ফ্যান চালু ও নতুন করে ফ্যান লাগানোর জন্য তাৎক্ষণিক নির্দেশ দেন ডাক, তার ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী। ডিজি তার কথায় সায় দিয়ে তিন কর্ম দিবসের সময় চান। জিপিও থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় প্রতিমন্ত্রী উপস্থিত ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, গ্রাহকদের সন্তুষ্টি আনা আমাদের প্রথম কাজ। সদিচ্ছা থাকলে যে কোন কাজ দ্রুত করা সম্ভব। তথ্যকেন্দ্র চালু করার জন্য সাত দিন সময় দিয়েছিলাম। এখন দেখতে পাচ্ছি কম্পিউটারসহ তথ্যকেন্দ্রটি চালু হয়েছে। তিনি বলেন, ডাক বিভাগ ডিজিটালাইজেশনের দিকে যাচ্ছে। আমার ৯০ দিনের কর্মসূচিতে ডাক বিভাগের কিছু কর্মকাণ্ড রয়েছে। আশা করছি, ডাক বিভাগকে একটি পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারবো। জিপিও থেকে বেরিয়ে পুরানা পল্টন এলাকায় ফুটপাথে সিম বিক্রিকারী মো. আলাউদ্দিনকে বেশকিছু সিমসহ হাতেনাতে ধরেন ডাক, তার ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী। ফুটপাথে সিম বিক্রিকারীর কাছে ফরম ও জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি দেখতে চান তারানা হালিম। কিন্তু তিনি কোন কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হন। এ সময় তার কাছ থেকে রেজিস্ট্রেশনবিহীন দশটি সিম কার্ড জব্দ করা হয়।

বাহাদুর বেপারীএক্সক্লুসিভ
ঢাকা জিপিও’র সেবার মান দেখতে গতকাল বিকালে ঝটিকা অভিযান চালান ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। বেলা সোয়া তিনটায় প্রতিমন্ত্রী জিপিও’র গেট দিয়ে প্রবেশের পর পরই প্রতিষ্ঠানটির চেহারা যেন পাল্টে যায়। জিপিওতে ২০ মিনিট অবস্থানকালে সেবা নিতে আসা বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে গিয়ে কোন সমস্যা আছে কিনা জানতে চান তিনি।...