jossor_311821
যশোরের মনিরামপুরে নাশকতার পরিকল্পনার সময় অ্যাডভোকেট এনামুল হকসহ জামায়াতে ইসলামীর পাঁচ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় ঘটনাস্থল থেকে চারটি বোমা উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ দাবি করেছে।
এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, জামায়াত নেতাকর্মীদের আটকের স্থান থেকে বোমা বা অন্য কোনো কিছু পুলিশ উদ্ধার করেনি।
অ্যাডভোকেট এনামুলের ছেলে ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, তার বাবা পানিবন্দী মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করে ফেরার সময় আটক হয়েছেন।
আটকরা হলেন- মণিরামপুর উপজেলার বাঙালিপুর গ্রামের মৃত আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে ইসলামী সঙ্গীতশিল্পী অ্যাডভোকেট রোকুনুজ্জামান, হাজরাকাটি বেলতলা গ্রামের রজব আলী সরদারের ছেলে মাদরাসাশিক্ষক আবু আব্দুল্লাহ আল মামুন, একই গ্রামের মৃত ফেলু মোড়লের ছেলে মাদরাসাশিক্ষক জহুরুল হক এবং বাঘারপাড়া উপজেলার বাবরা গ্রামের এয়াকুব আলীর ছেলে শহিদ।
মণিরামপুর থানার এসআই সিকদার মতিয়ার রহমান ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, জামায়াত-শিবিরের ৫০-৬০ জন নেতাকর্মী উপজেলার চাকলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নাশকতার পরিকল্পনা করছে বলে খবর পেয়ে সেখানে হানা দেয় পুলিশ। অন্যরা পালিয়ে গেলেও অ্যাডভোকেট এনামুলসহ পাঁচজন ধরা পড়েন। সেখান থেকে চারটি বোমাও উদ্ধার করা হয়। আটক পাঁচজনের নামে থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।
তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, জামায়াত নেতাকর্মীদের কাছ থেকে পুলিশ কোনো কিছু উদ্ধার করেনি। তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। থানায় নেওয়ার পর সংবাদকর্মীদেরও আটক ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলতে দেওয়া হয়নি।

হাসন রাজাশেষের পাতা
যশোরের মনিরামপুরে নাশকতার পরিকল্পনার সময় অ্যাডভোকেট এনামুল হকসহ জামায়াতে ইসলামীর পাঁচ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় ঘটনাস্থল থেকে চারটি বোমা উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ দাবি করেছে। এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, জামায়াত নেতাকর্মীদের আটকের স্থান থেকে বোমা বা অন্য কোনো কিছু পুলিশ উদ্ধার করেনি। অ্যাডভোকেট এনামুলের ছেলে ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, তার বাবা...