DHARSON-1
প্রাইভেটকারে ধর্ষণের শিকার হওয়া ছাত্রীটি জজ হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে আইন বিভাগে ভর্তি হয়েছিল ঢাকার নামকরা একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে। তার জীবনে বয়ে যাওয়া একটি দুর্ঘটনা এখন তার সেই স্বপ্ন ধূলিস্যাৎ করে দিয়েছে। শুধু বলছেন, তার ভবিষ্যৎ সব স্বপ্ন শেষ করে দিয়েছে নরপশুরা। কিভাবে কলেজে যাবে, সহপাঠী কিংবা মানুষ জনের সামনে কিভাবে মুখ দেখাবে। এমন যন্ত্রণা এখন তাকে তাড়া করে বেড়াচ্ছে।
এ ছাড়া গতকাল সকালে মানিকগঞ্জের একটি হাসপাতালে পাঁচ দিন ধরে চিকিৎসাধীন ওই ছাত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) ও এনডিপি প্রোগ্রামের জাতীয় প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার। ছাত্রীর সঙ্গে দেখা শেষে ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে তিনি বলেন, এটি একটি দুর্ঘটনা মাত্র। অপরাধীদের শাস্তির জন্য তার পরিবারকে সর্বোচ্চ আইনি সহায়তা দেয়া হবে। এ ছাড়া মেয়েটির জজ হওয়ার আশা পূরণে সরকার সব ধরনের সহযোগিতা করবে এবং তার পাশে থাকবে
। এ সময় জেলা প্রশাসক রাশিদা ফেরদৌসসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে হাসপাতালের এক ডাক্তার ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানিয়েছেন, মেয়েটি মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছে। শারীরিক নির্যাতনের ক্ষত সেরে উঠতে সময় না লাগলেও মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়া ক্ষত সেরে উঠতে সময় লাগবে। এজন্য তাকে সব সময় সাহস ও মানসিক সাপোর্ট দিতে হবে।
ছাত্রীর পিতা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, ঘটনার পর থেকে তার মেয়ে মানসিকভাবে একেবারেই ভেঙ্গে পড়েছে। ঠিক মতো কথাবার্তা, খাওয়া-দাওয়াও করছে না। মনের মধ্যে শুধু ভয় আর আতঙ্ক বিরাজ করছে। কেউ সামনে গেলে মুখ লুকিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। তিনি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, ছাত্রী হিসেবে তার মেয়ে অনেক ভাল ছিল। স্বপ্ন ছিল বড় হয়ে জজ হবে। তাই নিজে শত কষ্ট করে ওকে ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। জজ হওয়ার স্বপ্ন দেখার আগেই মেয়ের জীবনে এমন একটি ঘটনা ঘটে গেলো যা কখনোই ভাবতে পারিনি।
তার দাবি অপরাধীর এমন শাস্তি হওয়া উচিত যা দেখে আর কেউ যেন এমন অপরাধ করতে না পারে। গত শনিবার বনানীর একটি ছাত্রীনিবাসের সামনে থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ওই ছাত্রীকে জোর করে একটি প্রাইভেটকারে তুলে নিয়ে যায়। এর পর নির্জন জায়গায় নিয়ে তার হাত-পা বেঁধে গাড়ির ভেতরেই জোরপূর্বক ধর্ষণ করে সবুজ। শরীরের ওপর চালায় অমানসিক নির্যাতন। গাড়ির চালক ধর্ষণ ও নির্যাতনের ভিডিও চিত্র তার মুঠোফোনে ধারণ করে। পরে বিকালের দিকে অনেকটা বিবস্ত্র অবস্থায় সবুজ তাকে ছাত্রী নিবাসের সামনে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে তার পরিবারের লোকজন মানিকগঞ্জের একটি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করে। এ ঘটনায় ধর্ষক সবুজকে সোমবার মানিকগঞ্জ শহরের একটি পার্সের দোকান থেকে আটক করা হয়েছে। তবে তার সহযোগী গাড়ি চালক ও প্রাইভেটকারের কোন হদিস মিলছে না।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/10/DHARSON-11.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/10/DHARSON-11-300x210.jpgবাহাদুর বেপারীএক্সক্লুসিভ
প্রাইভেটকারে ধর্ষণের শিকার হওয়া ছাত্রীটি জজ হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে আইন বিভাগে ভর্তি হয়েছিল ঢাকার নামকরা একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে। তার জীবনে বয়ে যাওয়া একটি দুর্ঘটনা এখন তার সেই স্বপ্ন ধূলিস্যাৎ করে দিয়েছে। শুধু বলছেন, তার ভবিষ্যৎ সব স্বপ্ন শেষ করে দিয়েছে নরপশুরা। কিভাবে কলেজে যাবে, সহপাঠী কিংবা মানুষ জনের সামনে...