1438327888
অপেক্ষার পালা ফুরিয়ে এসেছে ছিটমহলবাসীর। শুরু হয়েছে ক্ষণ গণনা। আজ শুক্রবার ঘড়ির কাঁটা রাত ১২টা পার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কার্যকর হবে ছিটমহল বিনিময়। ভারতের ভেতর থাকা ৫১টি বাংলাদেশি ছিটমহল এবং বাংলাদেশের ভেতরে থাকা ১১১টি ভারতীয় ছিটমহল আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হবে।

এতে বাংলাদেশের ভেতর থাকা ছিটমহলবাসী পাবে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব আর ভারতের ভেতর থাকা ছিটমহলবাসীরা পাবে ভারতের নাগরিকত্ব। মানুষের জীবনযাত্রার পাশাপাশি বদলে যাবে বাংলাদেশ ও ভারতের মানচিত্র। আর থাকবে না ছিটমহল নামের কোনো জনপদ।

বহু প্রতীক্ষিত সেইদিন- সেই ক্ষণের অপেক্ষায় ছিটমহলগুলোতে এখন বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। ঐতিহাসিক এই মুহূর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে চলছে নানা প্রস্তুতি। ঢাকঢোল পিটিয়ে, বাজি ফুটিয়ে, শঙ্খ বাজিয়ে, মিছিল করে, ভারতীয় পতাকা হাতে নিয়ে বিজয় উৎসবে মেতে উঠবে গোটা ছিটমহলবাসী।

আলোক মালায় সাজবে বাড়িঘর। চলবে মশাল মিছিল। ওড়ানো হবে আকাশপ্রদীপ। মধ্য মশালডাঙ্গা ছিটমহলে দেখানো হবে ছিটমহলবাসীদের ওপর নির্মিত একটি তথ্যচিত্রও। ওই তথ্যচিত্রে থাকবে ছিটমহলবাসীদের সুদীর্ঘ ৬৮ বছরের বঞ্চনা, যন্ত্রণা ও ভিনদেশের ভেতর পরগাছা হয়ে থাকার দুঃসহ দিনগুলোর কথা।

তাহসিনা সুলতানাশেষের পাতা
অপেক্ষার পালা ফুরিয়ে এসেছে ছিটমহলবাসীর। শুরু হয়েছে ক্ষণ গণনা। আজ শুক্রবার ঘড়ির কাঁটা রাত ১২টা পার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কার্যকর হবে ছিটমহল বিনিময়। ভারতের ভেতর থাকা ৫১টি বাংলাদেশি ছিটমহল এবং বাংলাদেশের ভেতরে থাকা ১১১টি ভারতীয় ছিটমহল আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হবে। এতে বাংলাদেশের ভেতর থাকা ছিটমহলবাসী পাবে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব...