untitled-1_105694
টিউশন ফির ওপর আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি এবং আন্দোলনরত শিক্ষক-ছাত্রদের ওপর পুলিশি হামলার প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। গতকাল সকাল থেকে ‘নো ভ্যাট অন এডুকেশন’-এর ব্যানারে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ ছয়টি সড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা। সকাল থেকে সন্ধ্যা অবধি এই ছাত্র বিক্ষোভে কার্যত ঢাকা অচল হয়ে পড়ে। রামপুরার কর্মসূচি সন্ধ্যার পর স্থগিত করা হয়। ধানমন্ডির কর্মসূচি চলে রাত পর্যন্ত। আজ সকাল ১০টা থেকে আবারও তাদের কর্মসূচি শুরু হবে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। এদিকে গতকাল রাত ৮টার দিকে ধানমন্ডি এলাকায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালিয়েছে একদল যুবক। শিক্ষার্থীরা দাবি করেছে, জয় বাংলা বলে তাদের ওপর এ হামলা চালানো হয়। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ‘শিক্ষা কি পণ্য, ভ্যাট কি জন্য’ ব্যানার নিয়ে সকাল থেকে বিক্ষোভ শুরু করেন। ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা রামপুরা ব্রিজে অবস্থান নেন। মহাখালীতে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, কুড়িল বিশ্বরোডে নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি ও ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, ধানমন্ডিতে ড্যাফোডিল ও লিবারেল আর্টস, উত্তরায় কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় এবং শ্যামলীতে আশা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন।

অবরোধে রাজধানীর প্রধান প্রধান সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গোটা মহানগর স্থবির হয়ে পড়ে। অবরোধের দুই পাশে শত শত যানবাহন আটকে থাকে। বিস্তীর্ণ এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। আটকেপড়া যানবাহনের ভিতর ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকতে হয় সাধারণ যাত্রীদের। অবর্ণনীয় ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ। আবার অনেক স্থানে ছিল না কোনো গণপরিবহন। অসহায়ের মতো রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছে তাদের। স্কুল ছাত্রছাত্রীদের হেঁটে ফিরতে দেখা যায়। বহু মানুষকে ভরদুপুরে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে গন্তব্যে পৌঁছাতে হয় হেঁটে। দুপুরে মহাখালী থেকে পুরো বিমানবন্দর সড়কে ছিল থেমে থাকা যানবাহনের দীর্ঘ লাইন। শাহবাগ থেকে ফার্মগেট, ফার্মগেট থেকে মহাখালী রাস্তায় হাজার হাজার যানবাহনের চাকা ঘোরেনি ঘণ্টার পর ঘণ্টা। একই সঙ্গে মিরপুর রোডেও দেখা যায় তীব্র যানজট। নগরজুড়ে তীব্র যানজটের কারণে রোগী বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সও আটকে থাকে দীর্ঘ সময়। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল এবং ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে শিক্ষার্থীদের টিউশন ফির ওপর সাড়ে ৭ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপের প্রতিবাদে কয়েক মাস ধরেই আন্দোলন চালিয়ে আসছেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের এ আন্দোলনের মুখে গতকাল শেষ বেলায় এনবিআর ঘোষণা দেয়, ছাত্ররা নয়, ভ্যাট দেবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এ ঘোষণাকে না মেনে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার পাল্টা ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। সরকারি ঘোষণার পর ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদের ভ্যাটের টাকা ফেরত দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। গত বুধবার ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে রাজধানীর বাড্ডা থানাধীন আফতাবনগরে আন্দোলনরত ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ বেধড়ক লাঠিচার্জ, টিয়ার শেল নিক্ষেপ ও গুলিবর্ষণ করে। ওইদিন দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত পুলিশের সঙ্গে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় রামপুরার আফতাবনগর, রামপুরা ব্রিজ ও মেরুল বাড্ডা এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এ সময় পুলিশের ছররা গুলিতে ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির একজন অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার ও ৩০ শিক্ষার্থী আহত হন। এমন এক পরিস্থিতিতে গতকাল সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাজধানীর ছয়টি পয়েন্টে একযোগে সড়ক অবরোধ কর্মসূচি শুরু হয়। রামপুরা, ধানমন্ডি, গুলশান ও কালাচাঁদপুর থেকে কুড়িল এলাকায় এ আন্দোলন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে নগরজুড়ে ভোগান্তির সূচনা হয়।

আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ছিল। পুলিশের রায়ট গাড়ি ও জলকামান ছিল প্রস্তুত। তবে সকাল থেকে ছাত্ররা সড়ক অবরোধ শুরু করলেও পুলিশ এদিন কোনো বাধা দেয়নি। প্রত্যক্ষদর্শীরা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা বেলা ১১টার দিকে রামপুরা ব্রিজ অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, সরকার তাদের ওপর অতিরিক্ত ভ্যাট চাপিয়ে দিয়েছে। এ অতিরিক্ত ভ্যাট প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। এ দাবি না মানা পর্যন্ত কর্মসূচি চলবে। শিক্ষার্থীদের এ অবরোধের কারণে প্রগতি সরণির মেরুল বাড্ডা এবং রামপুরা ডিআইটি রোডে যানজট দেখা যায়। ঘণ্টার পর ঘণ্টা সড়কে আটকে থেকে যাত্রী ও পথচারীদের ভোগান্তি চরমে ওঠে। এ সময় বিমানবন্দর সড়কের খিলক্ষেত, কুড়িল বিশ্বরোড, এমইএস ও কাকলীতে শত শত মানুষকে গাড়ির প্রতীক্ষায় থাকতে দেখা যায়। অনেকে হেঁটেই গন্তব্যে রওয়ানা দেন। বিশ্বরোড মোড় এলাকায় গাড়ির জন্য অপেক্ষমাণ এক যাত্রী দুপুর ১২টার দিকে বলেন, তিনি প্রায় এক ঘণ্টা ধরে অপেক্ষা করেও গাড়ি পাননি। একপর্যায়ে উত্তরামুখী কিছু কিছু গাড়ি বিমানবন্দর থেকে ঘুরে মহাখালীমুখী পথে রওনা হলে হুড়োহুড়ি করে সেসব গাড়িতে ওঠার চেষ্টা করতে দেখা যায় অনেককে। শরিফ নামে এক যাত্রী উত্তরার হাউজ বিল্ডিং থেকে হেঁটে বিমানবন্দর আসেন এবং সেখানে ইউটার্ন নেওয়া একটি গাড়িতে উঠে শহরের দিকে যাত্রা করেন। তিনি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, হাউজ বিল্ডিংয়ে রাস্তা আটকে থাকায় ঝামেলা হচ্ছে। মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই। এ ছাড়া নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে প্রগতি সরণির কোকাকোলা মোড় থেকে নর্দ্দা মোড় পর্যন্ত এবং বিপরীতমুখী পথে কুড়িল বিশ্বরোড সড়কে অসংখ্য যানবাহন আটকা পড়ে। প্রগতি সরণিতে নামতে না পেরে কুড়িল ফ্লাইওভারের দুটি অংশে যানজট দেখা দেয়। এদিকে ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের কারণে মিরপুর সড়কেও দেখা যায় একই পরিস্থিতি। নিউ মার্কেটে উত্তরার এক যাত্রী ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, সোবহানবাগে ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের কারণে মিরপুর রোডে তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। মহাখালীর ওয়্যারলেস গেট এলাকায় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করলে পুলিশ গুলশান এক নম্বর থেকে এ পথে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়। উত্তরার হাউজ বিল্ডিং এলাকায় শিক্ষার্থীদের অবরোধের কারণে বিমানবন্দরমুখী যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। অন্যদিকে উত্তরা থেকে ফার্মগেটমুখী সড়কে দেখা দেয় যানবাহন সংকট। বেলা ১১টার পর মহাখালীর ওয়ারলেস গেট এলাকায় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অবরোধের কারণে গুলশান এক নম্বর থেকে আমতলী মোড়ের দিকে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে বাড্ডা থেকে গুলশানমুখী সড়কে, গুলশান-২ থেকে গুলশান-১ এর আশপাশের সড়কে এবং মহাখালীর আমতলী ও রেলগেট এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

শিক্ষার্থী নয়, ভ্যাট দেবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ : জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) জানিয়েছে, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর আরোপিত ভ্যাট পরিশোধের দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের, শিক্ষার্থীদের নয়। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে গতকাল এনবিআরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সৈয়দ এ মুমেন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়- শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায়ের জন্য নতুন করে ভ্যাট আরোপ করা হয়নি। বিদ্যমান টিউশন ফির মধ্যেই তাদের ভ্যাট অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ভ্যাট বাবদ অর্থ পরিশোধ করার দায়িত্ব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের। এটা কোনোক্রমেই শিক্ষার্থীদের প্রদানের বিষয় নয়। বিদ্যমান টিউশন ফির মধ্যেই ভ্যাট অন্তর্ভুক্ত থাকায় টিউশন ফি বাড়ারও কোনো সুযোগ নেই। প্রসঙ্গত, চলতি অর্থবছরের বাজেটে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের শিক্ষার্থীদের টিউশন ফির ওপর সাড়ে ৭ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপ করে সরকার। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ৪ জুলাই এ বিষয়ে আদেশ জারি করে। এর পর থেকে এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ-সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছেন।

আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা : আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে। গতকাল রাজধানীর রাপা প্লাজার সামনে ধানমন্ডি ২৭ নম্বর সড়কে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের ওপর দুই দফা হামলা চালানো হয়। রাত সাড়ে ৮টার দিকে ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে বেশ কয়েকজন যুবক এ হামলা চালান। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ঘিরে পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকলেও তারা হামলাকারীদের কোনো বাধা দেয়নি। ধানমন্ডির ২৭ নম্বর সড়কে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে গতকাল সকাল থেকেই অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে ২৫-৩০ জন যুবক জয় বাংলা স্লোগান দিতে দিতে ওই সড়কে এসে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালান। কিছুক্ষণ পর হামলাকারী যুবকরা পুলিশের পাশে গিয়ে দাঁড়ান। এ সময় পুলিশের সদস্যরা তাদের চলে যেতে বলেন। তারা চলে গেলে আবারও ঘণ্টাখানেক পরে ফিরে আসেন। এ সময় ওই যুবকরা লাঠিসোঁটা নিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মারধর করে। হামলার পর শিক্ষার্থীরা আবার সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করেন।

আন্দোলনকারীদের লাঠিপেটা করে উচ্ছেদ করল পুলিশ : পুলিশ লাঠিপেটা করে আন্দোলনকারীদের উঠিয়ে দিয়েছে। রাত ১০টার দিকে ধানমণ্ডির শুক্রাবাদ এলাকার সড়কে শিক্ষার্থীদের তুলতে লাঠি চালায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী। এ ঘটনায় পাঁচজন আহত হয়েছেন বলে শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন। তবে পুলিশ একজনকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করেছেন বলে সাংবাদিকদের জানান। পুলিশ ও আন্দোলকারীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ধানমণ্ডির ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে আশপাশের কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সারা দিনের পর রাতে অবরোধ চালিয়ে যাচ্ছিল। রাত পৌনে ১০টার দিকে ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে অবরোধকারীদের ধাওয়া দেয়। এ সময় পুলিশের পেছনে লাঠি হাতে একদল যুবক ছিল বলে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছে। এ সময় উত্তেজিত শিক্ষার্থীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছুড়লে পুলিশও লাঠিপেটা করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। আন্দোলনকারীরা চলে গেলে সেখানে একজন শিক্ষার্থীকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।

হাসন রাজাএক্সক্লুসিভ
টিউশন ফির ওপর আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি এবং আন্দোলনরত শিক্ষক-ছাত্রদের ওপর পুলিশি হামলার প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। গতকাল সকাল থেকে ‘নো ভ্যাট অন এডুকেশন’-এর ব্যানারে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ ছয়টি সড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা। সকাল থেকে সন্ধ্যা অবধি এই ছাত্র বিক্ষোভে কার্যত ঢাকা অচল হয়ে...