1440326883
চিনিশিল্পকে বাঁচাতে হলে চাষিদের আখ চাষে উৎসাহিত করতে হবে। পর্যাপ্ত আখ উৎপাদন না হলে আখের অভাবে পর্যায়ক্রমে চিনিকলগুলো বন্ধ হয়ে এ শিল্প ধ্বংস হয়ে যাবে। তাই চাষিদের কাছে গিয়ে চিনিকলের সকল কর্মকর্তা ও মাঠকর্মীদের আখ চাষে উৎসাহিত করতে হবে।
বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশন (বিএসএফসি)র চেয়ারম্যান এ কে এম দেলোয়ার হোসেন শনিবার রাতে নাটোর চিনিকল স্কুল মিলনায়তনে কর্মকর্তা ও মাঠ কর্মীদের সঙ্গে মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, ‘আখ চাষের জন্য চিনিকল থেকে সার, কীটকানশক ঔষধসহ বিভিন্ন ধরনের ভর্তুতি প্রদান করা হবে যে অর্থ আখ চাষিরা মিলে আখ বিক্রির মাধ্যমে পরিশোধ করবেন।’
নাটোর চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল রফিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মত বিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কর্পোরেশনের পরিচালক (সিডিআর) মো. আজিজুর রহমান, চিপ সিপিএস কামরুজ্জামান, প্রধান সিপি হাবিবুর রহমান, জিএম (কৃষি) আখতার হোসেন, ডিজিএম (সম্প্রসারণ) এস এম নুরুল হুদা, নাটোর চিনিকলের সিবিএ-এর সভাপতি মো. ফিরোজ আলী ও সাধারণ সম্পাদক মনছুর রহমান, চিনিকল ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি আব্দুল জলিল পান্না, সিডিএ সমিতির সভাপতি মিজানুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া হোসেন। এতে শতাধিক মাঠকর্মী, সিআইসি ও কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে একই স্থানে তিনি প্রায় চার শতাধিক আখ চাষিদের নিয়ে মত বিনিময সভা করেন।

তাহসিনা সুলতানাশেষের পাতা
চিনিশিল্পকে বাঁচাতে হলে চাষিদের আখ চাষে উৎসাহিত করতে হবে। পর্যাপ্ত আখ উৎপাদন না হলে আখের অভাবে পর্যায়ক্রমে চিনিকলগুলো বন্ধ হয়ে এ শিল্প ধ্বংস হয়ে যাবে। তাই চাষিদের কাছে গিয়ে চিনিকলের সকল কর্মকর্তা ও মাঠকর্মীদের আখ চাষে উৎসাহিত করতে হবে। বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশন (বিএসএফসি)র চেয়ারম্যান এ কে...