9_110829
চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী মনে করেন, দেশের ভূ-প্রাকৃতিক যে সুবিধাজনক অবস্থান তার পূর্ণাঙ্গ সদ্ব্যবহার করা হচ্ছে না। আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম মহানগরী শাখার এই সভাপতি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, উন্নয়নে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ঠিকই কিন্তু ভূ-প্রাকৃতিক অবস্থানগত সুফলকে পূর্ণাঙ্গভাবে কাজে লাগাতে চট্টগ্রামের উন্নয়ন পরিকল্পনায় যে বিশেষ নজর দরকার তা পুরোটা নেই। যেমন কর্ণফুলীর পাড় হয়ে বেড়িবাঁধের ওপর দিয়ে প্রথমত সদরঘাট থেকে ফৌজদারহাট পর্যন্ত যে সড়কটি খুবই প্রয়োজন, সেটি না করে করা হচ্ছে ফ্লাইওভার। কোনটির গুরুত্ব বেশি বা কোনটি আগে করা প্রয়োজন, তাই আগে নির্দিষ্ট হওয়া দরকার। আঞ্চলিক ইস্যুতে আবারও মাঠে নামছেন চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী। কখনো চট্টগ্রামে ‘মার্কিনি বন্দর’ প্রতিষ্ঠা, কখনো বন্দরের নিয়োগ-টেন্ডারের অসংগতি কিংবা কখনো সন্ত্রাস-সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে আর সামাজিক সংকটে উচ্চকণ্ঠ থাকা নেতা তিনি। প্রবীণ এই নেতা এখন উদ্বিগ্ন চট্টগ্রামের অপরিকল্পিত নগরায়ণ চিত্র নিয়ে। শহরে বাস-ট্রাক টার্মিনালের অভাব, অপরিণামদর্শী ‘উড়ালসড়ক’ নির্মাণের হিড়িকও তাকে দারুণভাবে ভাবায়। নিকট অতীতে কর্ণফুলী নদীর ওপর ‘পিলার ব্রিজ’ নির্মাণের বিরোধিতা আর নিয়মিত নদী ড্রেজিংয়ের দাবিতেও মহিউদ্দিন চৌধুরীর আন্দোলন স্মরণযোগ্য। স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলন যেমন, তেমনি বন্দরটিলায় গানপাউডার দিয়ে নিরীহ মানুষ হত্যার উৎসবের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে চট্টগ্রামের মাটি ও মানুষের আস্থার বরপুত্র হয়ে ওঠেন মহিউদ্দিন। তার বাকি জীবনটাও মানুষের জন্য উৎসর্গ করতে চান। গেলবার পবিত্র হজে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়া মহিউদ্দিনকে নিয়ে উৎকণ্ঠায় পড়ে যেন গোটা দেশ। এখন তিনি ভালোই আছেন। দেশে ফিরেই চশমা হিলে নিজ বাসভূম ফের মাতিয়ে তুলেছেন। রোজ আবার জমেছে তার বাসগৃহে জনমানবের ‘দরবার’। যথারীতি সেই ভোর থেকে রাত অবধি ভিড়। না আছে তার নগর পিতার আসন, না আছে মন্ত্রিত্বের মুকুট; তবুও নানা সমস্যা, রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে সংকটে তার বাড়িতে মানুষের পদছাপ লেগেই আছে। গতকাল এমনই এক বৃষ্টিস্নাত সকালে অন্য অনেক কথার ভিড়ে চাটগাঁর রাজনীতির এই ‘মুকুটহীন সম্রাট’ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানালেন দেশে-বিদেশে হত্যাযজ্ঞ নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার কথা। সরকারের অগ্রযাত্রার পথে ধর্মের লেবাস নিয়ে জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদীদের প্রতিবন্ধকতা তৈরি আর ষড়যন্ত্রের কাথা। হজ করে আসা এই প্রবীণ নেতা বিশ্বব্যাপী ইসলামকে নিয়ে ষড়যন্ত্রের কথাও জানালেন। মুক্তিযুদ্ধের পূর্বাপর সময়ে দফায় দফায় গ্রেফতার হওয়া এই রাজনীতিক মনে করেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে এখনো অনেক কিছুই করার বাকি রয়েছে। দেশকে দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্রকারীদের কবল থেকে বাঁচিয়ে বন্দরসম্পদ ও প্রকৃতিপ্রদত্ত সম্পদ রক্ষা করে দেশের প্রয়োজনে ব্যবহার করাটাও জরুরি। রাজনীতি ও জীবনের প্রয়োজনে প্রতিবেশী দেশে গিয়ে চায়ের দোকানে চাকরিও করেন মহিউদ্দিন। বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদে প্রতিরোধযুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে ভারতে গেলেও হুলিয়া মাথায় নিয়ে শেষ পর্যন্ত গ্রেফতারও হন তিনি। যুদ্ধ করে যে দেশ স্বাধীন করেছেন সে দেশের বিপক্ষের স্রোত সক্রিয় হলেই প্রতিরোধে নামেন মহিউদ্দিন। হয়তো এ কারণেই মুক্তিযুদ্ধে ‘মাউন্টেন ডিভিশনে’ থাকা এ নেতা বন্দর নিয়ে ষড়যন্ত্রের পূর্বাভাস পান। হেফাজতি তাণ্ডবেও দেশ রক্ষায় মাঠের যুদ্ধে অগ্রভাগে থাকেন। পেট্রলবোমা নিক্ষেপের হুকুমদাতাদের ডাকা হরতাল-অবরোধ প্রতিরোধে যেমন, তেমনি চট্টগ্রাম কলেজে মৌলবাদী আগ্রাসন ঠেকাতেও উচ্চকণ্ঠ মহিউদ্দিন।
হ্যাটট্রিক এই মেয়র তার সমর্থক ছাত্রনেতাদের সন্ত্রাসী-মৌলবাদবিরোধী আন্দোলনে গতি আনতে অনেকটা ব্যঙ্গোক্তি করে কখনো কখনো ‘শাড়ি চুড়ি পরে’ রাস্তায় নামতেও বলেন।দেশে বিদেশি হত্যা প্রসঙ্গকেও ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ বলে মনে করেন মহিউদ্দিন। এবার পবিত্র হজকালে মিনায় দুর্ঘটনায় বিপুল হতাহতের প্রসঙ্গটিও উঠে আসে মহিউদ্দিন চৌধুরীর আলোচনায়। সদ্য হজ করে আসা এই নেতা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, সেদিন হাজীদের জটের চেয়ে পানির অভাবেই বেশি মৃত্যু হয়েছে। পানি ও চিনি দুটোই হাজীদের সঙ্গে রাখা জরুরি। অনেকের তা ছিল না। তাই পানিশূন্য দেহ ধকল সইতে পারেনি। ২-৩ মিনিটের মধ্যেই অনেকের মৃত্যু হয়েছে। বন্দরসহ নানা আঞ্চলিক ইস্যুতে আবারও গর্জে ওঠার ইঙ্গিতও পাওয়া গেল চট্টগ্রামের এই ভূমিপুত্রের কণ্ঠে। অবশ্য তার আগে তিনি যথারীতি তার পরিচালনাধীন হযরত গরীবুল্লাহ শাহ (রহ.) মাজারের ওরশটি সেরে নিতে চান। অত্যাসন্ন এ ওরশ নিয়েই ব্যস্ত এখন সত্তরোর্ধ্ব এই নেতা।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/10/9_110829.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/10/9_110829-266x300.jpgঅর্ণব ভট্টপ্রথম পাতা
চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী মনে করেন, দেশের ভূ-প্রাকৃতিক যে সুবিধাজনক অবস্থান তার পূর্ণাঙ্গ সদ্ব্যবহার করা হচ্ছে না। আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম মহানগরী শাখার এই সভাপতি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, উন্নয়নে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ঠিকই কিন্তু ভূ-প্রাকৃতিক অবস্থানগত সুফলকে পূর্ণাঙ্গভাবে কাজে লাগাতে চট্টগ্রামের উন্নয়ন পরিকল্পনায়...