88e51dfc98be8df406a44ee5ba40ebc5-1t
দল যদি অন্যায় করে, মানুষ মারে, মানুষ পোড়ায়—এর প্রতিবাদ করতেই হবে। অন্ধকারের মধ্যে একটি মোমবাতি জ্বালিয়ে মানুষকে দেখাতে হবে। গুলি করে মানুষ মারার বিরুদ্ধে আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সচেতন নাগরিকদের সঙ্গে আইনজীবীরা দাঁড়ালে বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলা সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আইনজীবী ড. কামাল হোসেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনে আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রথিতযশা এই আইনজীবী।
ড. কামাল বলেন, বিনা বিচারে কাউকে গুলি করে মারা অন্যায়। অপরাধী হতে পারে, বিনা বিচারে মারা অন্যায়। সরকারি দলের লোকদের বিবেক যদি ধ্বংস হয়ে না যায়, তাঁরা অন্যায়কে অন্যায় বলবেন। যে যাঁর দল করুন, নিজকে অন্ধ, বোবা করবেন না। তিনি বলেন, ‘সরকারি দলের লোকজন অন্যায়কে অন্যায় বলতে শুনেছি।’
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে নিজের নানা স্মৃতির কথা তুলে ধরে কামাল হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধু সত্যিকার অর্থেই জাতির পিতা। ঘোষণা করে, আইন করে তা হয় না বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, বিলবোর্ডে অসৎ ব্যবসায়ীরা তাঁদের ছবির পাশে বঙ্গবন্ধুর ছবি দিচ্ছেন। এসব দূর করতে মাঠে নামা উচিত। তিনি বলেন, যেনতেনভাবে ক্ষমতায় যাওয়া বঙ্গবন্ধুর নীতি ছিল না। জনগণের ক্ষমতায় বিশ্বাসী ছিলেন তিনি। ন্যায়নীতি ও আইনের পক্ষে তরুণ আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
সাংবাদিক প্রবীর সিকদারের মুক্তিকে জনগণের বিজয় বলেও উল্লেখ করেন এই আইনজীবী। জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে তিন আইনজীবীকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অভিযোগ যে কারও বিরুদ্ধে থাকতে পারে। অভিযোগ থাকলে তদন্ত করা সাংবিধানিক দায়িত্ব। অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হলে শাস্তি পাবে, আর না হলে ছাড়া পাবে।

অর্ণব ভট্টজাতীয়
দল যদি অন্যায় করে, মানুষ মারে, মানুষ পোড়ায়—এর প্রতিবাদ করতেই হবে। অন্ধকারের মধ্যে একটি মোমবাতি জ্বালিয়ে মানুষকে দেখাতে হবে। গুলি করে মানুষ মারার বিরুদ্ধে আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সচেতন নাগরিকদের সঙ্গে আইনজীবীরা দাঁড়ালে বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলা সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আইনজীবী ড. কামাল হোসেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে...