ma-290x136
গাইবান্ধার দফায় দফায় বৃষ্টি ও উজান থেকে মেনে আসা পাহাড়ি ঢলে নদ-নদীর পানি ফের বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

শুক্রবার বিকেলে ব্রহ্মপুত্রের পানি ৩৬ সেন্টিমিটার, ঘাঘটের পানি বিপদসীমার ৪৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে এবং অন্যান্য নদীর পানি বিপদসীমা ছুঁই-ছুঁই করছে বলে জানিয়েছে জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড।

এদিকে, প্রবল স্রোতের কারণে জেলার সাদুল্যাপুর উপজেলায় সাদুল্যাপুর-দামোদরপুর সড়কের জামুডাঙ্গার ঘাঘট নদীর উপর অবস্থিত ব্রিজটি হুমকির মুখে পড়েছে।

ব্রিজের দক্ষিণ পাশের পিলারের গোড়া থেকে পাকা সড়কের ২০০ ফুট মাটি ঘাঘট নদীতে ধসে পড়েছে। ফলে, যানবাহন ও পথচারীদের চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।

দামোদরপুর ইউনিয়ন পরিষদ(ইউপি) চেয়ারম্যান মনোয়ারুল ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে হাসান জীম মণ্ডল জানান, সড়কটি ভাঙন রোধে এখনই কার্যকর ব্যবস্থা না নিলে ব্রিজটিও ভেঙে পড়বে। পানির তোড়ে ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ব্রিজ ভেঙে গেলে দামোদরপুর, কামারপাড়া, নলডাঙ্গা, কুপতলা, লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষের উপজেলার সঙ্গে যোগাযোগের পথ বন্ধ হয়ে যাবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আহসান হাবীব ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, সড়কটি ভাঙনের কথা শুনে সরেজমিনে পরিদর্শন করেছি। সড়ক মেরামতের জন্য এলজিআইডি নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবগত করা

বাহাদুর বেপারীস্বদেশের খবর
গাইবান্ধার দফায় দফায় বৃষ্টি ও উজান থেকে মেনে আসা পাহাড়ি ঢলে নদ-নদীর পানি ফের বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। শুক্রবার বিকেলে ব্রহ্মপুত্রের পানি ৩৬ সেন্টিমিটার, ঘাঘটের পানি বিপদসীমার ৪৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে এবং অন্যান্য নদীর পানি বিপদসীমা ছুঁই-ছুঁই করছে বলে জানিয়েছে জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড। এদিকে, প্রবল স্রোতের কারণে...