1437572858

গাইবান্ধায় ধর্ষণ মামলায় তিন যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। একই সাথে তাদের প্রত্যেকেই বিশ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদণ্ডের রায় দেন। বুধবার গাইবান্ধার নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক রত্নেশ্বর ভট্টাচার্য এই আদেশ দেন।

কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- গাইবান্ধা সদরের পুর্ব কোমরনই এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে স্বপন মিয়া (২৪), একই এলাকার আফসার আলীর ছেলে জিন্নু মিয়া (২২) ও নয়া মিয়ার ছেলে হেলাল মিয়া (২৩)।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৩ সালের ২৩ এপ্রিল বিকেলে গাইবান্ধা সদরের পূর্ব কোমরনই মিয়াপাড়া এলাকার জনৈক কিশোরী (১৭) নিজ বাড়ি থেকে একই এলাকায় খালার বাড়ি যাচ্ছিলেন। ওই সময় পূর্বকোমরনই ঘাঘট নদীর বাঁধের উপরে আসামিরা তাকে একা পেয়ে জোরপূর্বক কৃষি জমিতে পানি সেচ পাম্প (শ্যালো ইঞ্জিন) ঘরে নিয়ে গণধর্ষণ করে। পরে ওই ঘটনায় গাইবান্ধা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। মামলার রায়ে বুধবার ট্রাইবুনালের বিচারক রত্নেশ্বর ভট্টাচার্য ওই তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও বিশ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

মামলার অন্য আসামি একই এলাকার হামিদুল মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়াকে নির্দোষ ঘোষণা করে খালাস দেয়া হয়।

এ মামলায় সরকারি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মহিবুল হক সরকার মোহন এবং আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট নিরঞ্জন ঘোষ।

হীরা পান্নাস্বদেশের খবর
গাইবান্ধায় ধর্ষণ মামলায় তিন যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। একই সাথে তাদের প্রত্যেকেই বিশ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদণ্ডের রায় দেন। বুধবার গাইবান্ধার নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক রত্নেশ্বর ভট্টাচার্য এই আদেশ দেন। কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- গাইবান্ধা সদরের পুর্ব কোমরনই...