1_107720
রাজধানীর লালবাগের হাজী দেলোয়ার হোসেন খেলার মাঠে পুরান ঢাকার অন্যতম বৃহৎ কোরবানির হাট এ বছর এখনো তেমন জমে ওঠেনি। বেচাকেনাও কম। তবে দর্শনার্থী সমাগম হচ্ছে প্রতিদিনই। উপলক্ষ্য হাটে ওঠা দুই জোড়া গরু। নাদুস-নুদুস গরু চারটির দাম হাকা হচ্ছে ৮ থেকে ১০ লাখ টাকা।

রবিবার দুপুরে লালবাগ সেকশন এলাকা দিয়ে হাটে প্রবেশ করতেই চোখে পড়ে দুটি গরু। কেউ ছবি তুলে নিচ্ছেন, কেউ দূরে দাঁড়িয়ে সেলফি। তবে কাছে যাওয়ার সাহস পাচ্ছেন না কেউ। বিক্রেতা আনোয়ার হোসেন গরু দুটির দাম হাঁকছেন ১৮ লাখ টাকা। একটি ১০ লাখ, অন্যটির দাম ৮ লাখ।

কুষ্টিয়ার পোড়াদহ এলাকার কৃষক আনোয়ার হোসেন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, তিনি আটটি গরু নিয়ে ঢাকা এসেছেন। এর মধ্যে বড় দুটি গরু নিজেই ৩ বছর ধরে দেখভাল করেছেন। অন্য ছয়টি গরু ঢাকা আসার সময় তিনি কিনে নিয়ে এসেছেন।

তিনি বলেন, বাজারে ক্রেতা নেই। তারপরও বড় গরুটি ৮ লাখ টাকা দাম উঠছে। এখন তো আর কিনবে না, দেখতে আসে। ঈদের দু-একদিন আগে ঠিকই কামড়িয়ে (দর কষাকষি) ধরবে। ১০ লাখ টাকাই বিক্রি করার আশা করছি।

গরু মোটাতাজাকরণের জন্য অনেকে ওষুধের আশ্রয় নেয় জানালে ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে তিনি বলেন, আমি এ সব করি না। অনেক টাকা খরচ করেই গরু পালি। জাত ভাল হলে আর খাবার ও যত্ন ঠিক থাকলে গরু এমনিতেই বড় হয়।

এদিকে এ হাটের ১নং কাউন্টারের সাথে আরও এক জোড়া গরু সেলিব্রেটি বনে গেছে। সবাই ভিড় করছে দেখতে। গরুর সঙ্গে তুলছে সেলফি। গরু দুটি এসেছে কুষ্টিয়া সদর থেকে।

গরুর মালিক আসাদ মিয়া ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, ‘তিনটি গরু নিয়ে ঢাকা এসেছি। একটি মাঝারি মানের হলেও বড় দুটি ২০ লাখ টাকায় বিক্রি করতে চাচ্ছি। অনেকেই ভিড় করছে। এখনো কেউ দাম বলেনি, দেখে চলে যাচ্ছে।’

মিস্টি রহমানএক্সক্লুসিভ
রাজধানীর লালবাগের হাজী দেলোয়ার হোসেন খেলার মাঠে পুরান ঢাকার অন্যতম বৃহৎ কোরবানির হাট এ বছর এখনো তেমন জমে ওঠেনি। বেচাকেনাও কম। তবে দর্শনার্থী সমাগম হচ্ছে প্রতিদিনই। উপলক্ষ্য হাটে ওঠা দুই জোড়া গরু। নাদুস-নুদুস গরু চারটির দাম হাকা হচ্ছে ৮ থেকে ১০ লাখ টাকা। রবিবার দুপুরে লালবাগ সেকশন এলাকা দিয়ে হাটে...