1445107888
খুলনার আদালতে জমেছে ৬৮ হাজার মামলার পাহাড়। দীর্ঘদিন ধরে নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছেন বিচার প্রার্থীরা। দেওয়ানী এবং ফৌজদারী মামলাগুলো নিষ্পত্তি করতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক বিচারক খুলনাতে নেই। অনেক বিচারককে একসঙ্গে তিন-চারটি আদালতের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

খুলনায় ৬৮ হাজার ৬৪টি মামলার মধ্যে দেওয়ানী ৩০ হাজার ৩৭৬টি এবং ফৌজদারী ৩৭ হাজার ৬৮৮টি মামলা নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছে। গত মঙ্গলবার খুলনায় জুডিশিয়ারি সম্মেলনে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার সামনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়। বিশাল এ মামলার তথ্য দেখে প্রধান বিচারপতি বিচারক, আইনজীবী, প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি বিভিন্ন নির্দেশনা ও আহ্বান জানান। তবে আইনজীবীদের বক্তব্যে একটি কথার ওপর বেশি জোর দেয়া হয় সেটি হচ্ছে বিচারক সংকটের সমাধান করা।

দেওয়ানী (সিভিল) ৩০ হাজার ৩৭৬টি মামলার মধ্যে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এবং অন্যান্য দেওয়ানী আদালতে সর্বোচ্চ ৩০ হাজার ৩২৫টি মামলা, বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতে ১৫টি এবং জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে ৩৬টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। অপরদিকে ফৌজদারী (ক্রিমিনাল) ৩৭ হাজার ৬৮৮টি মামলার মধ্যে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সর্বোচ্চ ৯ হাজার ৯৭৪টি মামলা, মহানগর দায়রা জজ আদালতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮ হাজার ৩১৪টি মামলা নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছে।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক সমপ্রতি অবসরে যাওয়ায় এ আদালতের বিচারকের পদ শূন্য রয়েছে। ভারপ্রাপ্ত বিচারক হিসাবে অতিরিক্ত দায়রা জজ দিলরুবা সুলতানা দায়িত্ব পালন করছেন। বিচারক দিলরুবা সুলতানাকে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে। এরপরও তিনি খুলনার আলোচিত এবং স্পর্শকাতর মামলা হিসাবে নগরীর শিশু রাকিব হত্যা মামলার বিচার কাজ চালাচ্ছেন। ইতিমধ্যে তিনি শিশু রাকিব হত্যা মামলায় ৩৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেছেন। শুধু বিচারক দিলরুবা সুলতানাই নন, অনেক বিচারককেই এভাবে দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে প্রধান বিচারপতি বিচারকদের শূন্য পদ পূরণের আশ্বাস দিয়েছেন।

সূত্র জানায়, মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৬ হাজার ৪৮৭টি মামলা, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ৫ হাজার ২১০টি মামলা, দায়রা জজ আদালতে ২ হাজার ৯০১টি মামলা, জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে ৩১৪টি মামলা, বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতে ২৫৫টি মামলা ও দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে ২৯টি মামলা নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছে

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/10/1445107888.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/10/1445107888-300x300.jpgঅর্ণব ভট্টস্বদেশের খবর
খুলনার আদালতে জমেছে ৬৮ হাজার মামলার পাহাড়। দীর্ঘদিন ধরে নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছেন বিচার প্রার্থীরা। দেওয়ানী এবং ফৌজদারী মামলাগুলো নিষ্পত্তি করতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক বিচারক খুলনাতে নেই। অনেক বিচারককে একসঙ্গে তিন-চারটি আদালতের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে। খুলনায় ৬৮ হাজার ৬৪টি মামলার মধ্যে দেওয়ানী ৩০ হাজার ৩৭৬টি এবং ফৌজদারী...