mosharraf_162125
বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলা বাতিল চেয়ে সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বিএনপি নেতা এ কে এম মোশাররফ হোসেনের করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

পাশাপাশি এই রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ৫০ দিনের মধ্যে তাকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।

বিচারপতি ভবানী প্রসাদ সিংহ ও বিচারপতি এসএম মজিবুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ মামলা বাতিলের বিষয়ে এক রুলের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে সোমবার এ রায় দেন।

রায়ে বড়পুকুরিয়া মামলায় নিম্ন আদালতে বিচারকাজের ওপর থাকা স্থগিতাদেশও প্রত্যাহার করা হয়েছে। এর ফলে নিম্ন আদালতে মোশাররফের বিরুদ্ধে এ মামলার বিচারকাজ চলতে আর কোনো আইনি বাধা নেই বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মোহাম্মদ খুরশীদ আলম খান।

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি উত্তোলন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণে ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়ম এবং রাষ্ট্রর ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা ক্ষতি ও আত্মসাৎ করার অভিযোগে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি শাহবাগ থানায় দুদকের পক্ষ থেকে মামলাটি দায়ের করা হয়।

ওই বছরের ৫ অক্টোবর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। এরপর মামলাটি বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন এ কে এম মোশাররফ। এ মামলায় মোশাররফ ছাড়াও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ১৫ জন আসামি রয়েছেন।

অর্ণব ভট্টপ্রথম পাতা
বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলা বাতিল চেয়ে সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বিএনপি নেতা এ কে এম মোশাররফ হোসেনের করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি এই রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ৫০ দিনের মধ্যে তাকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে। বিচারপতি ভবানী প্রসাদ সিংহ ও বিচারপতি এসএম মজিবুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ...