কুষ্টিয়া সংবাদদাতা ।
কুষ্টিয়ায় বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে চালকরা। চাঁদা দাবি, চালককে মারধর ও হুমকি দেয়ার প্রতিবাদে তারা মঙ্গলবার রাত থেকে জেলার কোনো অ্যাম্বুলেন্স সেবা দিচ্ছে না। এর ফলে বিপাকে পড়েছে রেফার্ড করা রোগীর স্বজনরা।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

সূত্র ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানায়, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের সামনে ভাড়ার জন্য বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স রাখা হয়। এসব অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকাসহ রাজশাহীতে স্থানান্তর করা রোগী আনা-নেয়া করা হয়। হঠাৎ হাসপাতালের সামনের স্থানীয় কিছু যুবক অ্যাম্বুলেন্স চালকদের কাছে চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে অ্যাম্বুলেন্স চলতে দেবে না বলেও হুমকি দেয় তারা। চাঁদাবাজদের প্রতিরোধ করতে সম্প্রতি জেলা অ্যাম্বুলেন্স সমবায় সমিতি নামে একটি সংগঠন তৈরি করেন মালিক ও চালকেরা। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওই যুবকরা মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হাসপাতালের সামনে থাকা এক অ্যাম্বুলেন্সের চালক শামীম হোসেনের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা করে।

তারা দাবি করেন, রাজশাহী ও ঢাকায় অ্যাম্বুলেন্স ভাড়া হলে ৫০ থেকে ১০০ টাকা দিতে হবে তাদের। এ নিয়ে একপর্যায়ে ওই দালালরা অ্যাম্বুলেন্সের চালককে মারধর করে।

অ্যাম্বুলেন্স সমবায় সমিতির সভাপতি রফিকুল ইসলাম ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, বিষয়টি নেতাদের জানানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় যাওয়া হবে। আশানুরূপ সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত অ্যাম্বুলেন্স সেবা বন্ধ থাকবে। তিনি বলেন, অ্যাম্বুলেন্সের চালকেরা ভয়ে আছেন। তারা মারধরের শিকার হতে চান না। তাই অ্যাম্বুলেন্স চলাচল বন্ধ আছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, এ ধরনের কোনো অভিযোগ থানায় আসেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/01/738.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/01/738-300x300.jpgজান্নাতুল ফেরদৌস মেহরিনস্বদেশের খবর
কুষ্টিয়া সংবাদদাতা । কুষ্টিয়ায় বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে চালকরা। চাঁদা দাবি, চালককে মারধর ও হুমকি দেয়ার প্রতিবাদে তারা মঙ্গলবার রাত থেকে জেলার কোনো অ্যাম্বুলেন্স সেবা দিচ্ছে না। এর ফলে বিপাকে পড়েছে রেফার্ড করা রোগীর স্বজনরা।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। সূত্র ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে ...