1441165187
কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি’র) সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বেলাল হোসেন ওরফে জিরা সুমন (৩০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে জেলার আদর্শ সদর উপজেলার পালপাড়া ব্রিজের নিকট এই ঘটনা ঘটে।

নিহত জিরা সুমন নগরীর অশোকতলা এলাকার শাহজাহান সাজুর ছেলে এবং পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী।

গোয়েন্দা পুলিশ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, কুমিল্লার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার আলী আশ্রাফের নেতৃত্বে ডিবির একটি টিম ব্রাহ্মণপাড়া থেকে অভিযান চালিয়ে শহরে ফিরছিল। পথে কুমিল্লা-বুড়িচং সড়কের পালপাড়া ব্রিজের নিকট জিরা সুমন তার সহযোগীদের নিয়ে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে অতর্কিত গুলি চালায়। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে সন্ত্রাসী জিরা সুমন আহত হয়। পরে তাকে কুমেক হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গোয়েন্দা পুলিশ আরো জানান, এ সময় ঘটনাস্থল থেকে জামাল, সহিদ, স্বপন ও জাকির নামে জিরা সুমনের চার সহযোগীকে আটক করা হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে ১টি পিস্তল, ৫ রাউন্ড গুলি এবং ৩টি এলজি।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৬ নভেম্বর দুপুরে কুমিল্লা মহানগরীর ঝাউতলায় সন্ত্রাসী জিরা সুমনকে আটক করতে গিয়ে গুলিতে আহত হন ডিবির এস.আই ফিরোজ হোসেন। এ সময় গুলিবিদ্ধ এসআই ফিরোজের পিস্তল ছিনিয়ে নেয় জিরা সুমন বাহিনী। পরে ডিবি ও থানা পুলিশের কয়েকটি টিম জিরা সুমন বাহিনীকে আটক করতে অভিযান শুরু করে। ৯ নভেম্বর সকালে সদর উপজেলার আলেখারচর এলাকায় জিরা সুমনের সহযোগীদের আটক করতে গিয়ে ডিবি পুলিশের সাথে সন্ত্রাসীদের গুলিবিনিময়ের সময় নিহত হয় জিরা সুমনের সহযোগী তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী রাব্বী ও জনি।

এ বিষয়ে বুধবার বেলা ১১টায় পুলিশের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের বিফ্রিং দেয়ার কথা রয়েছে।

ওয়াজ কুরুনীজাতীয়
কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি’র) সাথে 'বন্দুকযুদ্ধে' বেলাল হোসেন ওরফে জিরা সুমন (৩০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে জেলার আদর্শ সদর উপজেলার পালপাড়া ব্রিজের নিকট এই ঘটনা ঘটে। নিহত জিরা সুমন নগরীর অশোকতলা এলাকার শাহজাহান সাজুর ছেলে এবং পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী। গোয়েন্দা পুলিশ...