POLICE LOGO
টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে পুলিশ-এলাকাবাসী সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনজন নিহতের ঘটনায় ঘাটাইল থানার একজন ও কালিহাতী থানার দুইজন উপপরিদর্শক (এসআই) এবং চার কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।
শনিবার রাত ৮টায় তাদের প্রত্যাহার করে টাঙ্গাইল পুলিশ লাইনে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

টাঙ্গাইলের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ (এসপি) সুপার সঞ্জয় সরকার বিষয়টি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে নিশ্চিত করছেন। তবে তাদের নাম জানাতে পারেননি তিনি।

এরআগে বিকেল ৪টায় কালিহাতী থানায় পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি মাহফুজুল হক নুরুজ্জামান ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, তিনজন নিহতের ঘটনায় টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট ও পুলিশ সদর দপ্তরের পক্ষ থেকে তিন সদস্যবিশিষ্ট পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

১৫ সেপ্টেম্বর কালিহাতীতে ছেলের সামনে মাকে ধর্ষণের প্রতিবাদে শুক্রবার বিকেলে ঘাটাইল-কালিহাতী এলাকাবাসী মিছিল বের করে। এ মিছিলে বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে ঘাটাইল উপজেলার সাতুটিয়া গ্রামের বাসিন্দা ফারুক (৩২), কালিয়া গ্রামের আলহাজের ছেলে শামীম (৩৫) ও কালিহাতী সদরের রবি দাসের ছেলে শ্যামল দাস (১৫) গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন।

সুরুজ বাঙালীপ্রথম পাতা
টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে পুলিশ-এলাকাবাসী সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনজন নিহতের ঘটনায় ঘাটাইল থানার একজন ও কালিহাতী থানার দুইজন উপপরিদর্শক (এসআই) এবং চার কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। শনিবার রাত ৮টায় তাদের প্রত্যাহার করে টাঙ্গাইল পুলিশ লাইনে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। টাঙ্গাইলের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ (এসপি) সুপার সঞ্জয় সরকার বিষয়টি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে নিশ্চিত...