1_106067
রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় সমাপ্তি ঘটে ক্ষুদে গানরাজের পঞ্চম আসর। আর এ মহোৎসবেই জ্ঞান হারায় প্রতিযোগী মহারাজা।

এবারের ক্ষুদে গানরাজের মুকুট ওঠে পুষ্পিতার মাথায়। প্রতিযোগিতায় প্রথম রানার আপ হয়েছে রাফতি এবং দ্বিতীয় রানার আপ মাহিন।

ক্ষুদে গানরাজের চূড়ান্ত পর্বের প্রতিযোগী ছিল সাত জন- অর্পিতা, পুষ্পিতা, পায়েল, মাহিন, মহারাজা, বিজলী ও রাফতি।

বিজয়ীদের নাম ঘোষণার সময় লক্ষ্য করা করা যায়- হল ভর্তি মানুষ ও প্রতিটি প্রতিযোগীর মধ্যে টান টান উত্তেজনা। একে একে তিন বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হয়। তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বিচারক ও অতিথিরা।

এদিকে পুরস্কার দেওয়া শেষ হলে মঞ্চ থেকে নেমেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলে মহারাজা। কাঙ্খিত ফলাফল অর্জন করতে না পেরে কাঁদতে কাঁদতে জ্ঞান হারায় সে।

কোলে করে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র থেকে বাইরে নিয়ে আসা হয় তাকে। প্রতিযোগিতায় মহারাজা এন্ড্রু কিশোরের গাওয়া ‘আমি চিরকাল প্রেমেরও কাঙাল’ গানটি গায়। দর্শকের ব্যাপক করতালিও জোটে। কিন্তু পুরস্কার ওঠে না ঝুলিতে।

গত বছরও চ্যানেল আই সেরা কণ্ঠে অংশ নিয়েছিলো ‘মহারাজা’। সেই বার চূড়ান্ত পর্বের আগেই বাদ পড়ে সে।

এবারের প্রতিযোগিতার প্রধান দুই বিচারক ছিলেন ফেরদৌস আরা ও এসআই টুটুল। অতিথি বিচারক হিসেবে ছিলেন কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লা।

হাসন রাজাবিনোদন
রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় সমাপ্তি ঘটে ক্ষুদে গানরাজের পঞ্চম আসর। আর এ মহোৎসবেই জ্ঞান হারায় প্রতিযোগী মহারাজা। এবারের ক্ষুদে গানরাজের মুকুট ওঠে পুষ্পিতার মাথায়। প্রতিযোগিতায় প্রথম রানার আপ হয়েছে রাফতি এবং দ্বিতীয় রানার আপ মাহিন। ক্ষুদে গানরাজের চূড়ান্ত পর্বের প্রতিযোগী ছিল সাত জন- অর্পিতা,...