ef307d71a1612b2e75693c922872f0d6-Untitled-1
হালের আলোচিত নায়িকা পরীমনির অভিনয় জীবনের দ্বিতীয় ছবি ‘রানা প্লাজা’। পরিচালক নজরুল ইসলাম খান। ছবিটি নিয়ে অনেক আশা এই অভিনেত্রীর। কিন্তু বারবার দিন তারিখ পরিবর্তনের কারণে মুক্তি দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না ছবিটির। এ নিয়ে ভীষণ মন খারাপ পরীমনির। বললেন, ‘আমার খালি কান্না পাচ্ছে! শুধু তাই নয়, ছবিটি মুক্তির তারিখ পিছিয়ে পড়ায় আমি কোনোভাবেই কান্না আটকে রাখতে পারছি না।’
ছবিটির মুক্তি নিয়ে নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের কথা উল্লেখ করে পরীমনি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বললেন, ‘আমার কাছে “রানা প্লাজা” শুধুমাত্র একটি ছবি নয়। এটি আমার কাছে অনেক ভালোবাসার জায়গা। আমার জীবনের অনেক স্মৃতি আর কষ্ট এই ছবিটির সঙ্গে জড়িয়ে আছে। ছবিটি যখন মুক্তির খবর শুনেছিলাম, তখন সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিক বন্ধুরা আমার অনুভূতি জানতে চেয়েছিলেন তখন আমার চোখ দিয়ে শুধুই পানি পড়েছে। এই ছবিটির কথা মনে করলেই আমি কান্না ধরে রাখতে পারি না। আমার কাছে “রানা প্লাজা” সত্যিই অন্যরকম একটা আবেগের ব্যাপার।’
প্রায় আট মাস সেন্সর বোর্ডে আটকে থাকার পর হাইকোর্টের রায় নিয়ে গত ১১ জুলাই ছবিটি ছাড়পত্র পায়। এরপর ৪ সেপ্টেম্বর ছবির মুক্তির দিন ঠিক হয়। কিন্তু এতে নানা ভীতিকর দৃশ্য দেখানোর অভিযোগ করে গত ২০ আগস্ট হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স এমপ্লয়িজ লিগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম। ২৪ আগস্ট শুনানি শেষে দেশে-বিদেশের প্রেক্ষাগৃহে বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে চলচ্চিত্রটি প্রদর্শন ও সম্প্রচারের ওপর ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্ট। এর ফলে চলচ্চিত্রটির মুক্তি আটকে যায়। পরে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে যান চলচ্চিত্রটির প্রযোজক শামীমা আক্তার। তাঁর করা আবেদনের নিষ্পত্তি করে ৬ সেপ্টেম্বর প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করেন। রানা প্লাজা ছবি মুক্তির নতুন তারিখ চূড়ান্ত ১১ সেপ্টেম্বর। সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালত ১০ সেপ্টেম্বর ‘রানা প্লাজা’র প্রদর্শনী ও সম্প্রচারের ওপর ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থিতাবস্থা (স্ট্যাটাস কো) দিয়েছেন। এতে আবারও ছবিটি মুক্তিতে অনিশ্চয়তা দেখা দেয়। সবগুলো ব্যাপার নিয়ে মন খারাপ এই ছবির প্রধান অভিনেত্রী পরীমনির।
পরীমনিচলচ্চিত্রে অভিনয় করতে এসেছেন খুব বেশিদিন হচ্ছে না পরীমনির। মাত্র তিন বছরে ত্রিশটির মতো ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন তিনি। এর মধ্যে এখন পর্যন্ত তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে আর শুটিং করছেন আরও বেশ কয়েকটি ছবির। সামনে চুক্তি সই করা ছবিগুলোর কাজ শুরু করবেন। তবে অভিনয়জীবনে যতই ছবির কাজ করেন না কেন রানা প্লাজা নাকি সবগুলোর মধ্যে অন্যতম হয়ে থাকবে। পরীমনি বললেন, ‘আমার তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। সামনে হয়তো আরও অনেক ছবি মুক্তি পাবে। কিন্তু আমার অভিনয়জীবনের সব ছবি যদি এক পাল্লায় আর রানা প্লাজা অন্য পাল্লায় রাখা হয়, তাহলে রানা প্লাজার পাল্লাই ভারী হবে বলে আমি মনে করি। আমার বিশ্বাস, এমন ছবি আমি আর কোনো দিন পাব না।’
এদিকে রানা প্লাজা ছবিটির মুক্তি নিয়ে যে বারবার দিনক্ষণ পরিবর্তন হচ্ছে তা নিয়ে কিছুটা স্বস্তিতেও আছেন তিনি। বললেন, ‘শুরুতে যেভাবে ছবিটি মুক্তি দেওয়ার কথা ছিল তখন হয়তো মানুষ যেভাবে দেখতে যেত এখন তা অনেক বেশি পাল্টে যাবে। আমি এমন কিছু মানুষের কাছ থেকে এমনটাও শুনেছি, ছবিটিতে এমনকি আছে যে বারবার আটকে দেওয়া হচ্ছে। এতে করে আরও বেশি মানুষের ছবিটি নিয়ে আগ্রহ বাড়ছে।
‘রানা প্লাজা’ ছবিটি নিয়ে বেশ রোমাঞ্চিত পরীমনি। বললেন, ‘এই ছবিটি আমাকে সবার কাছে একজন অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিত করাবে। এটি আমার অভিনীত দ্বিতীয় ছবি। এখানে দর্শকেরা আলাদা পরীমনিকে খুঁজে পাবেন।’
নজরুল ইসলাম খান পরিচালিত রানা প্লাজা ছবিতে পরীমনির বিপরীতে অভিনয় করেছেন সায়মন। অন্য অভিনয়শিল্পীরা হলেন আবুল হায়াত, প্রবীর মিত্র, মিজু আহমেদ, শিরিন আলম, কাবিলা, রেহেনা জলি প্রমুখ।

নৃপেন পোদ্দারবিনোদন
হালের আলোচিত নায়িকা পরীমনির অভিনয় জীবনের দ্বিতীয় ছবি ‘রানা প্লাজা’। পরিচালক নজরুল ইসলাম খান। ছবিটি নিয়ে অনেক আশা এই অভিনেত্রীর। কিন্তু বারবার দিন তারিখ পরিবর্তনের কারণে মুক্তি দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না ছবিটির। এ নিয়ে ভীষণ মন খারাপ পরীমনির। বললেন, ‘আমার খালি কান্না পাচ্ছে! শুধু তাই নয়, ছবিটি মুক্তির তারিখ...